এক বিংশ শতাব্দিতে প্রযুক্তির জয়যাত্রা আমাদের জীবনকে করে তুলেছে আরও বেশি সুবিধাযুক্ত। কিন্তু এই প্রযুক্তিকে যগদি ঠিকমতো আগলে রাখা না যায়, তার পরিনতি কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে তা সম্প্রতি টের পেয়েছেন চিনের এক যুবক। ঘুমন্ত অবস্থায় ফোনের ফেস রেকগনিশন লক খুলে তাঁর ডিজিটাল ওয়ালেট থেকেই লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিল রুমমেটরা।

চিনের নিংবো শহরের একটি রেস্তোরাঁতে কাজ করেন ওই যুবক। ওই রেস্তোরাঁতে কাজ করা বাকি দুই কর্মীর সঙ্গে একই ঘরে থাকতেন ওই যুবক। সম্প্রতি একদিন রেস্তারাঁ থেকে কাজ করে ফিরে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। ফোন রাখা ছিল পাশেই। ফোনে ছিল ফেস রেকগনিশন লক সিস্টেম। ওই যুবক যখন ঘুমিয়ে ছিলেন তখন মুখের দিকে ক্যামেরা তাক করে তাঁর রুমমেটরা খুলে ফেলে ফোনের লক। এরপর ‘উইচ্যাট’ অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়ে ফেলে প্রায় ১০ হাজার ইউয়ান। যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় এক লক্ষ টাকার সমান।

পরের দিন ঘুম থেকে উঠে ওই যুবক যখন দেখলেন তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা খোয়া গিয়েছে, তখন তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশ তদন্তে নামতেই ফাঁস হয় ওই যুবকের দুই রুমমেটের কীর্তি। লিউ ও ইয়াং নামের ওই দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তবে এই ঘটনার পাশাপাশি উঠছে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন। চোখ বন্ধ থাকা অবস্থাতেও কী ভাবে খুলে গেল ফেস লক? দ্বিতীয়ত, ডিজিটাল লেনদেনের জন্য একটি নির্দিষ্ট পিনের দরকার হয়। তাহলে এই ব্যক্তির পিন নম্বর কী তাঁর রুমমেটরা আগে থেকেই জানতেন? 

আরও পড়ুন: বিশ্বের বৃহত্তম এই বিমান থেকে পাঠানো যাবে কৃত্রিম উপগ্রহও