এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভারতের বিরুদ্ধে ব্যবহারের অভিযোগ নিয়ে অস্বস্তিতে পড়ল ইসলামাবাদ। সন্ত্রাস দমন ছাড়া অন্য কোনও কাজে ব্যবহার করা হবে না, এই শর্তে পাকিস্তানকে এফ-১৬ বিক্রি করেছিল মার্কিন সংস্থা লকহিড মার্টিন। কিন্তু ভারতের দাবি, একটি এফ-১৬ বিমানকেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে নামিয়েছিল অভিনন্দন বর্তমানের মিগ বাইসন। এফ-১৬ ব্যবহারের প্রমাণ হিসেবে আমরাম ক্ষেপণাস্ত্রের টুকরোও হাজির করেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। পাকিস্তান এ কথা অস্বীকার করেছে। বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তানের কাছে আরও তথ্য চেয়েছে আমেরিকা।

আজ মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল কোন ফকনার বলেন, ‘‘এফ-১৬ ব্যবহারের দাবির কথা আমরা জানি। আমরা এ নিয়ে আরও তথ্য চেয়েছি। বিদেশি রাষ্ট্রকে অস্ত্র বিক্রির চুক্তিতে গোপনীয়তার শর্ত থাকে। তাই কী শর্তে এফ-১৬ বিক্রি করা হয়েছিল তা জানাতে পারব না।’’

পাকিস্তান সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান দানিয়াল গিলানি-সহ কয়েক জন সরকারি কর্তা টুইটারে দাবি করেছিলেন, এফ-১৬ ব্যবহারের দাবি করায় ভারতের বিরুদ্ধে মামলা করবে লকহিড। আজ লকহিডের ভারতীয় শাখার তরফে জানানো হয়, ওই সংস্থা এমন কোনও মন্তব্য করেনি। দানিয়াল গিলানি লকহিডের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।