রাশিয়া থেকে চিন যাওয়ার পথে নিরাপত্তা কর্মীদের হাতে ধরা পড়লেন এক মহিলা। তিনি গোপনে সোনা পাচারের চেষ্টা করছিলেন। তাঁর হাঁটা চলা দেখে সন্দেহ হওয়ায় ধরা পড়ে যান।

রাশিয়া থেকে চিনে যাওয়ার একটি করিডোরে চলছিল রুটিন তল্লাশি। সেই সময় রাশিয়ার শুল্ক দফতরের কর্মীদের এক মহিলাকে দেখে সন্দেহ হয়। আসলে ওই মহিলাকে বেশ নার্ভাস দেখাচ্ছিল। সেই সঙ্গে তাঁর আচরণ অস্বাভাবিক ঠেকছিল ওই অফিসারদের কাছে।

সন্দেহ হওয়ায়, মহিলাকে পাশে ডেকে জেরা করেন শুল্ক দফতরের কর্মীরা। সেখানে দেখা যায় মহিলা জুতোর মধ্যে সোনা লুকানো রয়েছে। যার পরিমাণ প্রায় এক কেজি ৯০০ গ্রাম। জুতোর মধ্যে এতটা সোনা লুকিয়ে থাকার কারণেই ওই মহিলার হাঁটা চলায় অসুবিধা হচ্ছিল।

আরও পড়ুন: বায়ু দূষণের জের মন্দিরেও, বিগ্রহেও মুখোশ

জেরায় মহিলা জানিয়েছেন, তাঁকে এক চিনা ব্যক্তি সোনাগুলি রাশিয়া থেকে নিয়ে যেতে বলেছিলেন। সেই কথা মতো তিনি সোনাগুলি নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ওই মহিলা সোনা নিয়ে যাওয়ার কোনও বৈধ কাজপত্র দেখাতে পারেননি। মহিলার বিরুদ্ধে সোনা পাচারের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দম্পতির ব্যক্তিগত মুহূর্তের শব্দ রেকর্ড যুবকের, ঘটনা ধরা পড়ল হোটেলের সিসি ক্যামেরায়

এক শুল্ক আধিকারিক জানিয়েছেন, এই বছরের শুরু থেকে রাশিয়া থেকে চিনে সোনা নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার এমন প্রচুর ঘটনা সামনে এসেছে। অগস্ট মাসে এক মহিলা ১০ কেজি সোনা পাচারের সময় ধরা পড়েন।