বজ্রাঘাতের পরও মৃত্যুর মুখ থেকে বেঁচে ফিরলেন এক ব্যক্তি।বাজ পড়ে হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে চিকিত্সার ব্যবস্থা করায় কোনও রকমে প্রাণে বেঁচে যান তিনি। আর বজ্রপাতের মুহূর্ত সহ সেই ঘটনা ধরা পড়ল সিসিটিভি ক্যামেরাতে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে স্টুবেনর এয়ারলাইন ভেটেনারি হসপিটালের সিসিটিভি ক্যামেরাতে ধরা পড়েছে গোটা ঘটনাটি। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বৃষ্টির মধ্যে এক ব্যক্তি তিনটি কুকুর নিয়ে যাচ্ছেন। হঠাত্ই তিনি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে যান। কুকুরগুলি দৌড়ে পালিয়ে যায়। ওই ব্যক্তিকে পড়ে যেতে দেখে আশপাশ থেকে দৌড়ে আসেন তিন জন।

স্থানীয় সংবাদপত্র সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বজ্রপাতে আক্রান্ত এই ব্যক্তির নাম আলেকজান্ডার কোরিয়াস। তাঁকে ওই ভাবে মাটিতে পড়ে যেতে দেখেই হাসপাতালের এক কর্মী বুঝতে পারেন কিছু গণ্ডগোল হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ছুটে যান। গিয়ে দেখেন হৃদস্পন্দন পাওয়া যাচ্ছে না। আরও দুই হাসপাতালের কর্মী ছুটে আসেন।

আরও পড়ুন : চুরির পর ব্যাগ খুলে আঁতকে উঠল চোর! ব্যাগে মিলল...

তিন জনে মিলআলেকজান্ডারকে হাসাপালের মধ্যে নিয়ে গিয়ে প্রাথমিক চিকিত্সা দেন। সেখানে তাঁর হৃদস্পন্দন ফিরে আসে। ইতিমধ্যে খবর যায় আপৎকালীন বিভাগেও। ওই হাসপাতাল থেকে তাঁকে হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়া হয়। ভর্তি করানো হয় অন্য একটি হাসপাতালে। সেখানে চিকিত্সার পর প্রাণে বেঁচে যান আলেকজান্ডার। তবে তাঁর বেশ কিছু হাড় ভেঙেছে, সেই সঙ্গে কিছু পেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেবজ্রপাতের ফলে।

আরও পড়ুন : হিরের মধ্যে হিরে! প্রথমবার খোঁজ মিলল এই রকম মূল্যবান রত্নের

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, আলেকজান্ডারের জুতো, মোজা পুড়ে গিয়েছে। এমনকি তাঁর পায়ের সামনে যেখানে বাজ পড়েছিল সেখানে একটা গর্তও তৈরি হয়েছে। তাই অনেকেই মনে করছে মৃত্যুর মুখ থেকে প্রায় ভাগ্যের জোরেই ফিরে এসেছেন আলেকজান্ডার।