চিনের হেফেই ওয়াইল্ড লাইফ পার্ক। প্রতিদিনের মতোই শুক্রবার সকালে সেখানে ভিড় জমিয়েছিলেন দর্শনার্থীরা। সকাল সকাল চলে এসেছিলেন পার্কের কর্মীরাও। কিন্তু হঠাৎই তাল কাটল সেই পার্কের। সৌজন্যে ১২ বছরের পুরুষ শিম্পাঞ্জি ইয়াং ইয়াং।

ওয়াইল্ড লাইফ পার্কে খাঁচা থেকে কোনও মতে বেরিয়ে পড়ে ইয়াং। তার পরই শুরু করে দেয় দৌরাত্ম্য। খাঁচা থেকে বেরিয়ে শিম্পাঞ্জির এই কর্মকাণ্ড ধরা পড়েছে ওই পার্কের ক্যামেরায়। তার পরই ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিয়ো।

সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, খাঁচা থেকে বেড়িয়ে ছুটে বেড়াচ্ছে শিম্পাঞ্জিটি। ছুটতে ছুটতে সেখানকার এক কর্মীকেও এক লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দিল সে। সেই দেখে পার্কে আসা দর্শনার্থীরাও ভীত হয়ে পড়েন। দ্রুত বন্ধ করে দেওয়া হয় পার্কের মেন গেট। মাটিতে হুড়োহুড়ি করার পর ইয়াং উঠে যায় ছাদে। তখন নিরাপত্তারক্ষীরা ঘুম পাড়ানো গুলি মারে। সেই গুলি খেয়ে ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পড়লে ইয়াংকে ফের নিয়ে যাওয়া হয় খাঁচায়। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই ঘটনার জেরে কেউ আহত হয়নি। 

আরও পড়ুন: পোষ্যর প্রাণ বাঁচাতে কুমিরের সঙ্গে লড়লেন ফ্লোরিডার ব্যক্তি!

আরও পড়ুন: স্কুলে হারিয়ে যাওয়া ওয়ালেট ৭৫ বছর পর ফিরে পেলেন মহিলা!