‘কমব্যাট ভেহিকল অব দ্য ফিউচার’ বা ‘ভবিষ্যতের যুদ্ধ যান’, এই নামেই ডাকা হচ্ছে ইজরায়েলের নতুন এই ট্যাঙ্ককে। রবিবার প্রকাশ্যে আনা হল ইজরায়েলের এই নতুন আবিষ্কারটি। বিশ্বের বেশিরভাগ ট্যাঙ্কেই চার জন সৈনিক থাকেন। কিন্তু এই ট্যাঙ্ক মাত্র দু’জনেই চালাতে পারবেন। শুধু তাই নয় এই ট্যাঙ্ক পরিচালিত হবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই)-এর মাধ্যমে।

ভেতরে ঢুকলে এক ঝলকে মনে হবে কোনও হাই কনফিগারেশন গেমিং সিস্টেমের সামনে চলে এসেছেন আপনি। বিশাল বিশাল টাচ স্ক্রিন, ট্যাঙ্কের চারদিকে যা রয়েছে (৩৬০ ডিগ্রিতে ভিশন), সব আপনার চোখের সামনে থাকবে। ভিডিয়ো গেমের মতো কন্ট্রোলার দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে ট্যাঙ্কটি।

ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, তারা চেয়েছিল সুরক্ষিত একটি যুদ্ধ যান, যেটি অপেক্ষাকৃত কম সেনা দিয়ে চালানো সম্ভব। এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত কয়েকজন আধিকারিক জানিয়েছেন, এটি একটি অনন্য কৃতিত্ব।

ইজরায়েল সরকার তাদের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয় তিনটি কম্পানিকে। দায়িত্ব দেওয়া হয় সরকারি কোম্পানি ইজারায়েল এরোস্পেস ইন্ডাস্ট্রিজ, রাফায়েল অ্যাডভান্সড ডিফেন্স সিস্টেম ও এলবিট সিস্টেমকে। রবিবার তিনটি কোম্পানি তাদের তৈরি ট্যাঙ্ক প্রদর্শন করে। তিনটি কোম্পানিই সফল হয়েছে পরীক্ষায়।

আরও পড়ুন : এবার ইলন মাস্কের ‘মস্করার পাত্রী’ হলেন ইংল্যান্ডের রানি!

আরও পড়ুন : মেঘের কম্বল ফুঁড়ে এমিরেটস বিমানের ‘গ্র্যান্ড এন্ট্রি’-র দৃশ্য ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

এই ট্যাঙ্কগুলিতে রয়েছে, স্বয়ংক্রিয় ড্রাইভিং ও লক্ষ্য খুঁজে বের করার ব্যবস্থা। এই কাজের জন্য ট্যাঙ্কগুলিতে রয়েছে অত্যাধুনিক ক্যামেরা ও সেন্সর। যেগুলি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও অন্যান্য সিস্টেমের সঙ্গে যুক্ত। খুব বেশি তথ্য প্রকাশ করা হয়নি ট্যাঙ্কটি সম্পর্কে। তবে এই ট্যাঙ্ক যে যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রুর থেকে কয়েক কদম এগিয়ে রাখবে তা অনুমান করা যায়।

ইজরায়েলের এক সামরিক ঘাঁটিতে এই ট্যাঙ্ক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক আধিকারিকদের সামনে প্রদর্শন হয়। খুব শীঘ্রই এর দাম, কবে ক্রেতাদের হাতে তুলে দেওয়া সম্ভব তা জানানো হবে বলে জানিয়েছেন ইজরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রকের অধিকারিকরা। ইজারায়েল বিশ্বের অষ্টম বৃহত্তম অস্ত্র রপ্তানিকারী দেশ। সম্প্রতি স্টকহলম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট এই তথ্য সামনে এনেছে।