রোশন থিং। নেপালের বছর তেরোর এই কিশোর এখন ইন্টারনেটে ভাইরাল। এক চিকিত্সকের সঙ্গে তার আবেগঘন মূহূর্ত ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। আসলে ওই চিকিত্সক তাকে দৃষ্টি ফিরিয়ে দিয়েছে। আর তাই সে তার মতো করে ধন্যবাদ জানাচ্ছে চিকিত্সককে। সেই দৃশ্যই ক্যামেরাবন্দি হয়েছে।

তিন বছর আগে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে রোশন। অন্ধকার নেমে আসে তার জীবনে। গত ৩ জুলাই অস্ত্রোপচারের পর ফের সে দৃষ্টি ফিরে পায়। দৃষ্টি ফিরে পেয়ে চিকিত্সক সান্দুক রুইকে ধন্যবাদ দিতে থাকে উচ্ছ্বসিত রোশন। বার বার চিকিত্সকের মুখে হাত বুলিয়ে বোঝার চেষ্টা করছে রোশন, এতদিন যিনি চিকিত্সা করছিলেন, এই কি সেই চিকিত্সক। নিশ্চিত হয়েই বার বার মাথায় গায়ে হাত বুলিয়ে আদর করে দিচ্ছিল তের বছরের কিশোরটি। চিকিত্সকও তাকে জড়িয়ে ধরেন।

রোশনের দৃষ্টি হারানো থেকে দৃষ্টি ফিরে পাওয়ার এই সফর সবার সামনে তুলে ধরেছিলেন নেপালের সাংবাদিক ওম আস্থা রাই। তিনিই ৩ জুলাই এই ভিডিয়োটি তাঁর টুইটার হ্যান্ডেলে প্রকাশ করেন। তারপর থেকেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে রোশন। ইতিমধ্যেই লক্ষাধিক বার দেখা হয়ে গিয়েছে ভিডিয়োটি। সেই সঙ্গে ভরে গিয়েছে শেয়ার আর কমেন্টে।

আরও পড়ুন : সমুদ্রে স্নানে ব্যস্ত পরিবার, এগিয়ে এল হাঙর! তারপর...

আরও পড়ুন : এসি গাড়ি চড়েন? ভুলেও এই কাজ করবেন না!