আমেরিকার নিউইয়র্কের সান দিয়েগোতে গাড়ির মধ্যেই বাস করতেন এক মহিলা। ওই গাড়িটাই ছিল তাঁর বাড়ি। ‘ছিল’, তার কারণ সম্প্রতি সাধের বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন তিনি। বাধ্য করেছে তাঁরই ‘কিছু’ পোষ্য। তবে পোষ্যের সংখ্যা নেহাত কম নয়, তিন শতাধিক ইঁদুর!

সেখানে সঙ্গী হিসাবে পুষেছিলেন দু’টি ইঁদুর। বংশবৃদ্ধি হয়ে কয়েক মাসেই ইঁদুরের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২০ তে! এই বিপুল পরিমাণ ইঁদুর প্রতিবেশীদেরও ক্ষতি করছে। শেষমেশ এক প্রকার বাধ্য হয়ে ইঁদুরগুলিকে ছেড়ে দিতে রাজি হয়েছেন ওই মহিলা। তবে ওই মহিলার পরিচয় জানা যায়নি।

সংখ্যায় বেড়ে ইঁদুরগুলি ওই মহিলার গাড়ির ইঞ্জিনের একাধিক তার ও সিট ছিঁড়ে দিয়েছে। এমনকি ওই গাড়ি থেকে বেরিয়ে আশেপাশের একাধিক গাড়িতেও অত্যাচার করছিল ইঁদুরগুলি। আসছিল প্রচুর অভিযোগও।

এই অবস্থায় এক প্রকার বাধ্য হয়ে ওই মহিলা সান দিয়েগো হিউম্যান সোসাইটির সাহায্য চান। সেখানকার প্রতিনিধিরা এসে ইঁদুরগুলিকে সংগ্রহ করে নিয়ে চলে যান। সে গুলিকে দত্তক নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। তবে ইঁদুরগুলি মহিলার গাড়ির যা ক্ষতি করেছে, তার জেরে ওই গাড়িতে থাকা সম্ভব নয় মহিলার। তাই তাঁর জন্য নতুন বাসস্থানেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই নতুন বাসস্থানে গিয়ে অবশ্য ইঁদুরকে পোষ্য করার সাহস দেখাননি ওই মহিলা। 

 

আরও পড়ুন: ‘‌ভালবাসা প্রকাশে শব্দের দরকার হয় না’- প্রমাণ করল এই ভিডিয়ো

আরও পড়ুন: জৌলুস কমেনি একটুও, মাটি খুঁড়তেই মিলল আট হাজার বছরের পুরনো বিশ্বের প্রাচীনতম এই মুক্তো