• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বই বিক্রি করতেই ওয়ার্নারের নাম, পেনে বিদ্ধ বেন

ben
চর্চা: স্টোকসের মন্তব্য নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ফাইল চিত্র

ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে বেন স্টোকসের মন্তব্যের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেন। তাঁর নতুন বইয়ে স্টোকস বলেছেন, অ্যাশেজে হেডিংলেতে তাঁর ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলার সময় ওয়ার্নার ক্রমাগত তাঁকে স্লেজিং করে গিয়েছিলেন। যাতে তাঁর দলকে জেতানোর জেদ আরও বেড়ে গিয়েছিল। স্টোকসের এই দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে পেন বলেছেন, ইংল্যান্ড অলরাউন্ডার বই বিক্রির জন্য এ সব বিতর্ক তৈরি করছেন। আসলে সে রকম কিছু হয়নি। 

গত অগস্টে অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে ৬৭ রানে প্রথম ইনিংসে অলআউট হওয়ার পরে ইংল্যান্ড হারের সামনে ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত ১৩৫ রানের তাণ্ডবে স্টোকস অবিশ্বাস্য জয় এনে দেন দলকে। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক বলেছেন, ‘‘সে দিন আমি মাঠে গোটা সময়টাই ডেভিডের পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। ক্রিকেট মাঠে তো কথা বলায় নিষেধ নেই। তাই ও কথা বলছিল। কিন্তু কোনও ভাবেই স্টোকসকে স্লেজিং করেনি।’’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘ইংল্যান্ডে এখন একটা খুব পরিচিত প্রবণতা হয়ে দাঁড়িয়েছে বই বিক্রি করার জন্য ডেভির (ওয়ার্নার) নাম ব্যবহার করার। তাই যারা এটা করছে তাদের বলব, অনেক শুভেচ্ছা রইল।’’

অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক বরং যে ভাবে মাঠে ইংল্যান্ড সমর্থকদের ক্রমাগত ব্যঙ্গ করার পরেও সেই সিরিজে ওয়ার্নার নিজেকে সামলেছেন তার প্রশংসা করেন। ‘‘ওয়ার্নারের পাশেই আমি দাঁড়িয়েছিলাম। ওকে নিয়ে আমার কোনও সমস্যা নেই। যে ভাবে ওয়ার্নার নিজেকে শান্ত রেখেছিল, তার প্রশংসা করতে হবে। এটাও কিন্তু মাথায় রাখতে হবে, ওই সিরিজে ও বড় রান পাচ্ছিল না। তাই আমার মনে হয় ও গোটা সিরিজেই দারুণ ভাবে নিজেকে সামলেছিল।’’ পেন আরও বলেছেন, ‘‘এ রকম কথা ওরা লিখেই থাকে বই বিক্রি বাড়ানোর জন্য। আমরা নিজেদের কাজ করে যাব। বেন এবং ইংল্যান্ড কি করতে চায়, সেটা তাদের ব্যপার।’’

অস্ট্রেলীয় বোর্ড মাঠে ক্রিকেটারদের আচরণ ঠিকঠাক রাখার ব্যাপারে এখন কতটা কড়া সেটা পেনের মন্তব্যের পাশাপাশি আরও একটা ঘটনায় পরিষ্কার— আচরণবিধি ভাঙার জন্য জেমস প্যাটিসনকে এক ম্যাচ নির্বাসিত করা। গত সপ্তাহে ঘরোয়া প্রতিযোগিতা শেফিল্ড শিল্ডে প্যাটিনসন এক খেলোয়াড়কে নিগ্রহ করার জন্য এই শাস্তি পান। প্যাটিনসন ঠিক কী বলেছিলেন সেটা পরিষ্কার নয়, তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার গভর্নিং বডি এই ঘটনাকে বলেছে, ‘‘ফিল্ডিং করার সময় ক্রিকেটারকে ব্যক্তিগত ভাবে আক্রমণ।’’ অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়ার একাংশের দাবি, প্যাটিনসনের বিরুদ্ধে সমকাম বিদ্বেষী মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল। গত আঠারো মাসে এই নিয়ে তৃতীয় বার অস্ট্রেলীয় বোর্ডের আচরণবিধি ভাঙায় এক ম্যাচ নির্বাসনের শাস্তি দেওয়া হয় প্যাটিনসনকে। 

অস্ট্রেলীয় বোর্ডের এক কর্তা বলেছেন, ‘‘সর্বোচ্চ মানের আচরণ তুলে ধরাটা আমাদের কর্তব্য। এই ঘটনায় যে ব্যবস্থা নেওয়া হল, তাতে সেটা আরও পরিষ্কার হয়ে গেল।’’ প্যাটিনসনের শাস্তির জন্য বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া ব্রিসবেন টেস্টের দলে আসার পথ পরিষ্কার হয়ে গেল মিচেল স্টার্কের। জশ হ্যাজেলউড, প্যাট কামিনস এবং নেথান লায়নের পাশাপাশি এই টেস্টে বোলার হিসেবে কে নামবেন তা নিয়ে প্যাটিনসনের সঙ্গে প্রতিযোগিতা ছিল স্টার্কের। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন