• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নতুন করোনা সংক্রমণে ধাক্কা ফুটবল বিশ্বে

জার্মানি ও স্পেন তবু লিগ চালু করার পক্ষে

Zinedine Zidane
দুশ্চিন্তা: মুখাবরণ পরে বের্নাবাউয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার জ়িদান। অনুশীলন শুরু হয়েছে রিয়ালেরও। ফাইল চিত্র

করোনাভাইরাসের হানায় ফের বিপর্যস্ত ফুটবল। নতুন করে লা লিগার পাঁচ জন ও জার্মান বুন্দেশলিগার দুই ফুটবলারের শরীরে পাওয়া গেল মারণ ভাইরাসের উপস্থিতি। প্রশ্ন উঠতে শুরু করে দিল এই দুই লিগের ভবিষ্যৎ নিয়ে। পাশাপাশি সোমবারই ইপিএলের ক্লাবগুলি আলোচনায় বসছে ইংল্যান্ডে নতুন করে ফুটবল শুরুর সম্ভাবনা নিয়ে। এমন একটা অবস্থাতেই জানা গেল, ব্রাইটনের এক ফুটবলার মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাই ফের ইপিএল শুরুর সম্ভাবনাতেও সৃষ্টি হল নতুন জটিলতা।  

দক্ষিণ কোরিয়ায় ইতিমধ্যেই ‘কে’ লিগের খেলা শুরু হয়ে গিয়েছে। ১৬ মে থেকে শুরু হওয়ার কথা জার্মান বুন্দেশলিগা। লা লিগা শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে জুন মাসের মাঝামাঝি থেকে। শনিবারই ভিডিয়ো কনফারেন্সে একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন লা লিগা কর্তৃপক্ষ। পাঁচ ফুটবলার পরিবর্তনের নিয়ম চালু করার পাশাপাশি ঠিক হয়েছে, ম্যাচ শুরুর আগে ফুটবলারেরা একে অপরের হাত ধরে (হ্যান্ডরেল) মাঠে নামতে পারবেন না। মাঠে কেউ থুতু ফেললে হলুদ কার্ড দেখবেন। হাফটাইমের পরে নতুন জার্সি পরে মাঠে নামতে হবে। খেলা হবে ফাঁকা স্টেডিয়ামে। ম্যাচের পরে সাংবাদিক বৈঠক হবে ভিডিয়ো কলের মাধ্যমে। এই বৈঠকের চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই প্রশ্ন উঠে গেল লা লিগার ভবিষ্যৎ নিয়ে। 

লা লিগার তরফে সব ক্লাবের ফুটবলারদের  স্বাস্থ্যপরীক্ষার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শনিবারই উপরের দিকের ডিভিশনের পাঁচ জন ফুটবলারের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। আক্রান্তদের নাম বা তাঁরা কোন ক্লাবে খেলেন তা গোপন রেখে এক বিবৃতিতে লা লিগার তরফে জানানো হয়েছে, পরবর্তী পরীক্ষা না হওয়া পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত পাঁচ ফুটবলারকে নিজেদের বাড়িতেই থাকতে বলা হয়েছে। তবে তাঁরা একা একা অনুশীলন করতে পারবেন। স্পেনের সংবাদ মাধ্যমের দাবি, আক্রান্তদের তিন জন প্রথম ডিভিশনে খেলেন। বাকি দু’জন দ্বিতীয় ডিভিশনের ফুটবলার।  কয়েক দিন আগেই আতলেতিকো দে মাদ্রিদের ব্রাজিলীয় ডিফেন্ডার রেনান লোদি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি এই মুহূর্তে গৃহবন্দি। আতলেতিকো দে মাদ্রিদের বাকি ফুটবলারেরা অবশ্য অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ‘তোমার মতো অনেকে এসেছে, চলেও গিয়েছে, আমায় বোকা বানাতে যেও না’, শামিকে

এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও জুন মাসের মাঝামাঝি থেকে ফের খেলা শুরু করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী লা লিগা কর্তৃপক্ষ। জানিয়েছেন, জুন মাসের মাঝামাঝি লা লিগা শুরু করতে কোনও সমস্যা হবে বলে মনে হয় না। তবে এখন সকলকেই স্পেন সরকারের নির্দেশ মেনে চলতে হবে। ফুটবলার, কোচ এবং ক্লাবের কর্মীদের বাধ্যতামূলক ভাবে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সর্বোচ্চ পর্যায়ের সতর্কতা অবলম্বন করতে  হবে। তাঁরা বলেছেন, ‘‘সকলকে সতর্ক করা হচ্ছে। কোনও রকম ঝুঁকি নেওয়া চলবে না। অনুশীলনের পরে নিয়মিত  কোচ, ফুটবলার ও ক্লাবের সব কর্মীর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হবে।’’

জার্মান বুন্দেশলিগায় দ্বিতীয় ডিভিশনের ক্লাব ডায়নামো দ্রেসদেনের দুই ফুটবলারের শরীরে মারণ ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে শনিবার। সঙ্গে সঙ্গেই ডায়নামোর সকলকেই ১৪ দিনের জন্য নিভৃতবাসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তা সত্ত্বেও ১৬ মে থেকে খেলা শুরু করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী জার্মান বুন্দেশলিগার প্রধান ক্রিস্টিয়ান সেইফার্ট। তিনি বলেছেন, ‘‘একটা ক্লাবের দু’জন ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে পুরো ফুটবল মরসুম বাতিল করে দেওয়া অর্থহীন। এই ধরনের ঘটনা যে ঘটতে পারে, তা আমি জানতাম। তাই বুন্দেশলিগা শুরু করা ছাড়া অন্য কিছু ভাবছি না।’’ স্পেন ও জার্মানিতে  ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি  শুরু করে দিয়েছে ক্লাবগুলো। লিয়োনেল মেসি, লুইস সুয়ারেস থেকে থোমাস মুলার, মানুয়েল ন্যয়ারেরা পুরোদমে অনুশীলন করছেন। দু’মাস বন্ধ থাকার পরে সোমবার থেকে প্রস্তুতিতে নামার কথা রিয়াল মাদ্রিদেরও। কয়েক দিন আগেই রিয়াল মাদ্রিদ সিটিতে জ়িনেদিন জ়িদান, করিম বেঞ্জেমা-সহ সকলেরই  স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হয়েছে। রিয়ালের কারও শরীরে করোনা পাওয়া যায়নি। 

আরও পড়ুন: কবে খেলা ছাড়বেন? অবসর নিয়ে ইঙ্গিত দিলেন রোহিত

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন