• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শেষ মুহূর্তে গোল খেয়ে ফের পয়েন্ট নষ্ট মেসিদের

Lionel MESSI
যুগলবন্দি: প্রথম গোলের পরে মেসি-সুয়ারেসের উচ্ছ্বাস। গেটি ইমেজেস

দু’বার এগিয়ে গিয়েও জয় হাতছাড়া বার্সেলোনার। ৩২ ম্যাচে ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের শীর্ষ স্থান পুনরুদ্ধার করলেও খুব একটা স্বস্তিতে নেই বার্সা সমর্থকেরা। কারণ, এক ম্যাচ কম খেলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৬৮। ব্যবধান এখন মাত্র এক পয়েন্টের।

লা লিগার খেতাবি দৌড়ে রিয়ালের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান বাড়িয়ে রাখার জন্য শনিবার সেল্টা ভিগোর বিরুদ্ধে জয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল লিয়োনেল মেসিদের কাছে। কারণ, আগের ম্যাচে মায়োরকাকে হারিয়ে লিগ টেবলের শীর্ষ স্থানে উঠে এসেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। তাই শুরু থেকেই মরিয়া ছিল কিকে সেতিয়েনের দল। প্রথমার্ধেই মেসি-লুইস সুয়ারেস যুগলবন্দিতে এগিয়ে যায় তারা। 

২০ মিনিটে সেল্টা ভিগোর পেনাল্টি বক্সের বাইরে বার্সা ফ্রি-কিক পায়। শট নিতে এগিয়ে যান মেসি। আর্জেন্টিনা অধিনায়কের গোল করা আটকাতে সেল্টা ভিগোর সব ফুটবলারই নেমে এসেছিলেন রক্ষণে। শুধু তাই নয়। গোল লাইনেও দাঁড়িয়ে ছিলেন দুই ফুটবলার! কিন্তু তাঁরা ভাবতেও পারেননি যে মেসি সরাসরি বল গোলে না মেরে দ্বিতীয় পোস্টের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা লুইস সুয়ারেসের উদ্দেশে ভাসিয়ে দেবেন। ঠান্ডা মাথায় বল জালে জড়িয়ে দিতে ভুল করেননি উরুগুয়ে তারকা। বার্সার জার্সিতে তিনি শেষ গোল করেছিলেন জানুয়ারি মাসে। মেসির সাহায্যেই প্রায় ছ’মাস পরে প্রত্যাবর্তন ঘটালেন সুয়ারেস। মুহূর্তের মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় অভিনব এই গোলের ভিডিয়ো।

স্পেনের ফুটবল পণ্ডিতেরা হাফটাইমে আলোচনা করছিলেন, বার্সার অনুশীলনে মেসি ও সুয়ারেস নিয়মিত এই ধরনের গোল করা অভ্যাস করেন। সেই দুর্দান্ত বোঝাপড়ার ঝলক দেখলেন ফুটবলপ্রেমীরা।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অস্বস্তি বাড়ে বার্সা শিবিরে। ৫০ মিনিটে গোল করে ১-১ করেন সেল্টা ভিগোর ফায়োদর স্মোলভ। ৬৭ মিনিটে ফের মেসির পাস থেকেই সুয়ারেস গোল করে বার্সাকে ২-১ এগিয়ে দেন। আর্জেন্টিনা তারকা এই ম্যাচেও গোল পেলেন না। একেবারে শেষ মুহূর্তে গোল করে নাটকীয় ভাবে ম্যাচের রং বদলে দেন সেল্টা ভিগোর লাগো আসপাস।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন