লাসিথ মালিঙ্গাদের পাকিস্তানে যেতে না চাওয়ার পিছনে ভারতের কোনও হাত নেই বলে বুধবার জানিয়ে দিলেন শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী হারিন ফার্নান্ডো। 

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে পাকিস্তানে তিনটি ওয়ান ডে এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার কথা শ্রীলঙ্কার। শ্রীলঙ্কা বোর্ড আগেই জানিয়ে দিয়েছিল, শুধু মাত্র যাঁরা যেতে চাইবেন, তাঁদেরই ওই সফরে নিয়ে যাওয়া হবে। এর পরে মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথেউজ-সহ দশ জন ক্রিকেটার এই সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নেন। যা নিয়ে তুমুল ক্ষোভ দেখা যায় পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটারদের মধ্যে।

এরই মধ্যে পাকিস্তানের এক মন্ত্রী মন্তব্য করে বসেন, তাঁকে নাকি কয়েক জন ধারাভাষ্যকার জানিয়েছেন, মালিঙ্গাদের পাকিস্তান না যাওয়ার পিছনে ভারতের হাত আছে। যে কথা উড়িয়ে দিয়ে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী এ দিন বলেন, ‘‘এই খবরের পিছনে কোনও সততাই নেই। যারা পাকিস্তানে যেতে চাইছে না, তারা নিরাপত্তার ভয় পাচ্ছে। যে কারণে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে।’’ এরই মধ্যে আবার শ্রীলঙ্কার পাক সফর নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছে। এ দিন শ্রীলঙ্কা বোর্ড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘‘প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে জানানো হয়েছে, পাক সফরে শ্রীলঙ্কা দলের উপরে সন্ত্রাসবাদীরা আক্রমণ চালাতে পারে। যে জন্য আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা নতুন করে খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’’

২০০৯ সালে লাহৌরে টেস্ট চলাকালীন শ্রীলঙ্কার টিম বাসে সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়। ছ’জন ক্রিকেটার আহত হয়েছিলেন। পাকিস্তানের ছয় পুলিশ কর্মী ও দু’জন সাধারণ মানুষ মারা গিয়েছিলেন। এই ঘটনার পর থেকেই অধিকাংশ দেশ পাকিস্তানে খেলতে রাজি হয়নি। ইতিমধ্যেই শ্রীলঙ্কা দলের দশ জন সিনিয়র ক্রিকেটার পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন।