টলিউডে আবার চমক বিজেপির সংগঠন বঙ্গীয় চলচ্চিত্র পরিষদের (বিসিপি)। বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়ের পরে এ বার বিসিপি-র পাশে দাঁড়ালেন টলিউডের আর এক প্রবীণ অভিনেত্রী মাধবী মুখোপাধ্যায়। দুঃস্থ শিল্পীদের পাশে দাঁড়াচ্ছে বিসিপি, সুতরাং তাদের পাশে সকলের থাকা উচিত— ভিডিয়ো বার্তায় মঙ্গলবার এমনই আহ্বান জানিয়েছেন মাধবী মুখোপাধ্যায়।

টলিউডে নিজেদের প্রভাব বাড়াতে সম্প্রতি অত্যন্ত তৎপর হয়েছে বিজেপি। বেশ কিছু শিল্পী ও কলাকুশলী বিজেপির সংগঠনে যোগদানও করেছেন ইতিমধ্যে। তবে গত শনিবার বেশ চমকে দিয়ে বিসিপি-র পরামর্শদাতা কমিটিতে শামিল হয়ে যান দীর্ঘ দিনের বামপন্থী হিসেবে পরিচিত বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়। এ বার সেই পথেই হাঁটলেন মাধবী মুখোপাধ্যায়ও।

এক ভিডিয়ো বার্তায় প্রবীণ অভিনেত্রী মঙ্গলবার বিসিপি সম্পর্কে বলেছেন, ‘‘আমি তো সব সময় এঁদের সঙ্গে থাকব। একটা মানুষ যখন জন্মেছে, তখন তার কাজ হচ্ছে, অন্য মানুষের হাতটা ধরা। সেই হাতটা যদি না ধরতে পারি, তা হলে তার চেয়ে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না। এই বঙ্গীয় চলচ্চিত্র পরিষদ আজকে আবার সেই হাতটা বাড়াচ্ছে।’’

আরও পড়ুন: টালিগঞ্জকে চমকে দিয়ে বিজেপির সংগঠনে শামিল বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়

ঠিক কী ধরনের হাত বাড়ানোর কথা বলতে চেয়েছেন মাধবী? টলিউড এবং বিজেপি সূত্রের খবর, সম্প্রতি অর্থনৈতিক ভাবে সঙ্কটে থাকা বেশ কিছু শিল্পীর পাশে দাঁড়িয়েছে বিজেপির সংগঠনটি। মাধবী মুখোপাধ্যায় সেই উদ্যোগকে সমর্থন করছেন এবং বিসিপির পাশে থাকার জন্য অন্যদেরও আহ্বান জানাচ্ছেন। মাধবী এ দিন বলেছেন, ‘‘অনেক দিন আগে হাত বাড়িয়েছিলেন উত্তম কুমার। অনেক দিন আগে হাত বাড়িয়েছিলেন কানন দেবী। কিন্তু তাঁরা আজকে নেই। শিল্প সংসদ এখনও আছে, এখনও দুঃস্থ শিল্পীদের প্রতি মাসে কিছু টাকা দেওয়া হয়। সেটা খুবই সামান্য। সব জিনিসের দাম বেড়েছে, তাতে শিল্পীদের কিছু হয় না। কিন্তু তবু এক ফোঁটা জল তো দেওয়া হয়, সেইটুকু ভাবি।’’ তার পরেই বিসিপির প্রশংসা করে মাধবী বলেন, ‘‘এঁরা আবার করার চেষ্টা করছেন, আপনারা সবাই একটু ভাবুন।’’

কিন্তু কাদের সাহায্য করেছে টলিপাড়ার গেরুয়া সংগঠন? কাদের পাশে দাঁড়িয়েছে? সে বিষয়ে বিশদ তথ্য দিতে রাজি নয় সংগঠনটি। তবে সংগঠনের তরফে শঙ্কুদেব পন্ডা এ দিন বলেন, ‘‘সাহায্য বলতে অর্থনৈতিক সাহায্যই। দুঃস্থ বা সঙ্কটে থাকা শিল্পীদের পাশে অর্থনৈতিক ভাবে যতটা দাঁড়ানো সম্ভব, আমরা দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। তাঁদের সঙ্কটের স্থায়ী নিরসনের কথাই আমরা ভাবার চেষ্টা করছি। তবে আমরা কারও নাম প্রকাশ করতে চাই না।’’ শঙ্কুর কথায়, ‘‘কাকে কী ভাবে সাহায্য করলাম, ওটা ফলাও করে প্রচার করে বেড়ানো তৃণমূলের সংস্কৃতি, আমাদের নয়। যাঁদের পাশে আমরা দাঁড়িয়ে, তাঁরা প্রত্যেকেই শ্রদ্ধার পাত্র। তাঁদের একটা বিশেষ সামাজিক সম্মান রয়েছে। সেটাকে আমরা কোনও ভাবে ক্ষুণ্ণ হতে দিতে পারি না।’’

আরও পড়ুন: কর্নাটক জট কাটার ইঙ্গিত, বিদ্রোহী বিধায়কদের মামলার রায় আগামিকাল, জানাল সুপ্রিম কোর্ট​

বিসিপি-র এই উদ্যোগের কথা মাধবী মুখোপাধ্যায় জেনেছেন বলেই তিনি বিসিপকে সমর্থন করছেন বলে সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে। মাধবীর এই ভিডিয়ো বিবৃতি এ দিন অনেককেই চমকে দিয়েছে। বাম জমানায় বামেদের সঙ্গে মাধবী মুখোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠতা সুবিদিত ছিল। কিন্তু তৃণমূল গঠিত হওয়ার পরে তিনি প্রকাশ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে এগিয়ে এসেছিলেন। ২০০১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থীও হয়েছিলেন মাধবী। এ হেন প্রবীণ অভিনেত্রী এ বার বিজেপির সংগঠনের পাশে দাঁড়ানোর জন্য খোলাখুলি সওয়াল করায় টলিউডে গত বেশ কিছু বছর ধরে চলতে থাকা তৃণমূলের একচ্ছত্র আধিপত্য ফের কিছুটা ধাক্কা খেয়েছে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।