• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিবেকানন্দ জন্মদিবসের শোভাযাত্রায় ফ্লেক্স-এ অভিষেকের ছবিতে বিতর্ক

TMC
বিতর্ক: এই ফ্লেক্স ঘিরে বিতর্ক। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

বিবেকানন্দের জন্মজয়ন্তী উদ্‌যাপনে তৃণমূলের শোভাযাত্রা। সেখানেই টোটো-অটোর পিছনে দেখা গেল ফ্লেক্সটি। ফ্লেক্সের নীচে বিবেকানন্দের জন্মজয়ন্তীর কথা লেখা আর তার উপরে রয়েছে দলের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বড় ছবি। ফ্লেক্সে ছিল তৃণমূল যুব কংগ্রেসের নাম। শোভাযাত্রায় থাকা ট্যাবলো, কিছু অটো, টোটোয় বিবেকানন্দের ছবি থাকলেও ওই ফ্লেক্সে অভিষেকের ছবির আশেপাশেও নেই বিবেকানন্দের ছবি। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বিরোধীর দলগুলি।

রবিবার সকালে শোভাযাত্রাটি বাঘাযতীন পার্ক থেকে শুরু হয়ে হিলকার্ট রোডের মাল্লাগুড়িতে শেষ হয়। তার মধ্যেই ওই ফ্লেক্সের ছবি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনায় বিতর্ক বাড়তেই শাসক দলের শীর্ষ নেতারা বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। 

শিলিগিুড়ির সিপিএম বিধায়ক ও মেয়র অশোক ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘‘ঘটনাটি দেখে, শুনে লজ্জা করছে। অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। আমি এই শহরের একজন জনপ্রতিনিধি আর সেখানেই স্বামী বিবেকানন্দের জন্মজয়ন্তীতে কী কাণ্ডটাই না হল! আসলে ফ্লেক্সে যাঁরা ছবি আছে, উনিই হয়ত তৃণমূলের বিবেকানন্দ।’’ কংগ্রেসের এআইসিসি সদস্য তথা প্রদেশ কংগ্রেসের সম্পাদক সুবীন ভৌমিক বলেন, ‘‘বর্তমান সময়ে স্বামীজির নীতি, আদর্শ বেশি করে যুব সমাজের কাছে পৌঁছনো প্রয়োজন। তখন তৃণমূলের যুবরা এই বার্তা দিলেন। আমরা মর্মাহত।’’

এ দিন সকালে বাঘাযতীন পার্ক থেকে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের উদ্যোগে শোভাযাত্রা শুরু হয়। সেখানে ছিলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব, দলের জেলা সভাপতি রঞ্জন সরকার এবং তৃণমূল যুব সভাপতি বিকাশ সরকার। শোভাযাত্রার সামনে বিবেকানন্দের ছবি, ব্যানার দিয়ে ট্যাবলো, গাড়ি ছিল। পিছনের দিকে টোটোগুলি থাকায় প্রথমে ওই ফ্লেক্সটি নজরে আসেনি। এরপরে শুরু হয় বাইক র‌্যালি। তাতে বহু তৃণমূল কর্মী, সমর্থক হেলমেট ছাড়াই বাইক চালাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। এরপরেই ওই ফ্লেক্স লাগানো বেশ কিছু টোটো রাস্তায় নামে। তখন ওই ছবি এবং লেখা দেখে অনেকেই অবাক হয়ে যান।

গৌতম দেব বলেছেন, ‘‘আমি বিষয়টি দেখিনি। এমন কী হল দেখছি।’’ আর দলের জেলা সভাপতি রঞ্জন সরকার বলেছেন, ‘‘ফ্লেক্স নিয়ে কী হয়েছে তা খোঁজখবর করছি।’’ তবে তৃণমূল যুব সভাপতি বিকাশের দাবি, ‘‘স্বামীজির আলাদা ছবি, মুখ্যমন্ত্রীর ছবি, আমাদের সংগঠনের সভাপতির ছবিও র‌্যালিতে ছিল। কাউকে তো অসম্মান করা হয়নি। আর স্বামীজির সঙ্গে তো অন্য কারও ছবি দেওয়া যায় না। তাই সেখানে কী উপলক্ষ্যে র‌্যালি তা লেখা ছিল মাত্র। অকারণে এসব নিয়ে জলঘোলা করা হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন