• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাজ্যে এক দিনে আক্রান্ত ৩৭১, বীরভূম এবং কোচবিহারে পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে ব্যাপক সংক্রমণ

Corona
—ফাইল চিত্র

গত ২৭ মে থেকে ২৮ মে-র মধ্য রাজ্যে এক দিনে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩৪৪ জন। এখন পর্যন্ত এ রাজ্যে সেটাই ছিল এক দিনে আক্রান্ত হওয়ার সর্বোচ্চ সংখ্যা। রবিবার স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত বুলেটিন অনুসারে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৭১ জন, যা আগের রেকর্ডকেও ছাপিয়ে গেল।

গত শনিবারই রাজ্যের মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছিল পাঁচ হাজার। এ দিন স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত বুলেটিন অনুসারে শুধু কলকাতাতেই সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়ে গিয়েছে। মোট সংখ্যা এক হাজার ১৪ জন। স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় যে ৩৭১ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের বেশির ভাগটাই দক্ষিণবঙ্গের (২২২ জন)। এরা কলকাতা (৭২), হাওড়া(৪৭), উত্তর ২৪ পরগনা (৬০) এবং হুগলি (৪৩) জেলার বাসিন্দা।

কিন্তু দক্ষিণবঙ্গের এই চার জেলার নতুন সংক্রমণের থেকেও স্বাস্থ্য ভবনের কর্তাদের চিন্তা বাড়িয়েছে বীরভূম এবং কোচবিহারের সাম্প্রতিক সংক্রমণ। দীর্ঘদিন গ্রিন জোন থাকার পর গত ২৪ ঘণ্টায় কোচবিহারে সংক্রমিত হয়েছেন ৩৬ জন। জেলায় মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ৬৮। তেমনই বীরভূমেও নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৭ জন। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, মালদহ এবং মুর্শিদাবাদের মতোই বীরভূম এবং কোচবিহারে যাঁরা সংক্রামিত হয়েছেন তাঁরা প্রায় সকলেই পরিযায়ী শ্রমিক এবং গত কয়েকদিনে তাঁরা ফিরেছেন নিজেদের জেলায়।

আরও পড়ুন: রাজ্যে লকডাউন কতটা? দেখে নিন ১৫ দিনের নির্দেশিকা

স্বাস্থ্য কর্তাদের একাংশ জানিয়েছেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে একজন সংক্রমিত হলে দ্রুত বাকিদের মধ্যে সংক্রমণ ঘটার সম্ভবনা। কারণ, তাঁরা প্রায় কোনও ধরনের সামাজিক সুরক্ষা বিধি না মেনেই ট্রেনে করে ফিরেছেন। অন্যদিকে আনলকডাউনের প্রথম পর্যায়ে অনেক ক্ষেত্রেই ছাড় শুরু হওয়ায়, চিন্তা বেড়েছে স্বাস্থ্য কর্তাদের। পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে সংক্রমিতদের দ্রুত চিহ্নিত করে ছড়িয়ে পড়়া রুখতে বিশেষ দল কাজ করছে। ইতিমধ্যেই রাজ্যে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২ লাখ ৩ হাজার ৭৫১টি। প্রতিদিন পরীক্ষা করা হচ্ছে প্রায় ১০ হাজার নমুনা।

আরও পড়ুন: ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস এ বার আরব সাগরে, আছড়ে পড়তে পারে বুধবার

পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে সংক্রমণের চিন্তার মধ্যেই কিছুটা স্বস্তি রাজ্যের রোগমুক্তির হার, ৩৯.২১ শতাংশ। বুলেটিন অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আট জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে। সব মিলিয়ে সংখ্যা ২৪৫। এর সংখ্যার বাইরে রয়েছে কোমর্বিডিটিতে মৃত ৭২ জন করোনা পজি়টিভ রোগী।
অন্যদিকে কলকাতার নিউমার্কেট থানার এক সাব ইনস্পেক্টর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সূত্রের খবর, শুক্রবার পর্যন্ত তিনি ডিউটি করেছেন। থানাতেই অসুস্থ বোধ করেন তিনি। তার পর শনিবার তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এই নিয়ে কলকাতা পুলিশের কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছাড়ালো। তবে এঁদের ৫০ শতাংশের বেশিই ইতিমধ্যে রোগমুক্ত হয়েছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন