• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তীব্র আর্থিক সঙ্কটের মধ্যেও বাড়ছে উৎসব অগ্রিম, বোনাসও

Mamata
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।—ছবি পিটিআই।

তীব্র আর্থিক সঙ্কটের মধ্যেও চলতি বছরে উৎসব অগ্রিম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন ‘‘দুর্যোগ যাবে, আসবে। উৎসব থেমে থাকবে না। 

এই সময়েই প্রতি বছর উৎসব বাবদ সরকারি কর্মচারীদের অগ্রিম দিয়ে থাকে রাজ্য সরকার। চলতি আর্থিক পরিস্থিতিতে তা সম্ভব কি না, তা পর্যালোচনা করার পরেই উৎসব অগ্রিম দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। স্থির হয়েছে, ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষে অ্যাডহক বোনাস ৪,২০০ টাকা হবে। যা ২০১৯-২০ সালে ছিল চার হাজার টাকা। এত দিন পর্যন্ত (২০১৯-২০) সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা মাসিক বেতনভোগী কর্মীরা এই বোনাসের জন্য বিবেচিত হতেন। এ বার সেই সীমা বেড়ে হচ্ছে ৩৪,২৫০ টাকা। 

একই ভাবে উৎসব অগ্রিমের অর্থ এবং প্রাপকদের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। স্থির হয়েছে, যাঁরা মাসে সর্বোচ্চ ৪১ হাজার টাকা বেতন পান, তাঁরাও ১০ হাজার টাকা উৎসব অগ্রিম পাবেন। এত দিন যাঁদের মাসিক বেতন সর্বোচ্চ ৩৪,২৫০ টাকা ছিল, তাঁরাই এই অগ্রিম পেতেন। ২০১৯-২০ সালে অগ্রিমের পরিমাণ ছিল আট হাজার টাকা। তাতে সরকারি, পঞ্চায়েত এবং পুরসভা, স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়, চুক্তিভিত্তিক, অস্থায়ী কর্মী উপকৃত হবেন। যে সংখ্যা দশ লক্ষ বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। রমজান এবং দুর্গাপুজোর কারণেই এই উৎসব অগ্রিম দেওয়া হয়ে থাকে। 

আরও পড়ুন: গ্রামবাংলার অর্থনীতির জাগরণ ঘটাতে নতুন প্রকল্প ঘোষণা মমতার

এ দিন মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, সাফাইকর্মীদের বিমার মেয়াদ আরও দু’মাসের জন্য, অর্থাৎ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হল। আশাকর্মীদের সুরক্ষার জন্য একটি চাদরের ব্যবস্থা করা হবে বলেও বুধবার পঞ্চায়েত দফতরের বৈঠকে জানান তিনি।

আরও পড়ুন: ক্ষুদ্র-ছোট-মাঝারি শিল্পত্রাণে নির্মলার ভরসা ব্যাঙ্কঋণই

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন