• প্রদীপ্তকান্তি ঘোষ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভুয়ো রেশন কার্ডের নজরে জনতার ‘চোখ’

ration card
প্রতীকী ছবি।

প্রযুক্তিতে বাঁধা পড়ছে গণবণ্টন ব্যবস্থা। রেশন সংগ্রহ কিংবা ভুয়ো কার্ড সংক্রান্ত অভিযোগ বা দোকান পরিবর্তন— সব কিছুতে প্রযুক্তির ব্যবহার হবে। তেমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে খাদ্য দফতর। তবে খাদ্য সামগ্রী সংগ্রহে সমস্যা বাড়ার শঙ্কা অবশ্য উড়িয়ে দিতে পারছে না সংশ্লিষ্ট মহল। কারণ, আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে 'ইলেকট্রনিক পয়েন্ট অব সেল' (ই-পস)-যন্ত্রে থাকবে না পরিবারের নতুন সদস্যদের সংযুক্তিকরণের সুবিধা। তাতে অসুবিধা হবে না বলে দাবি করছেন খাদ্য দফতরের আধিকারিকদের অনেকে। 

স্বচ্ছতার স্বার্থে রেশন কার্ডের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে আধার ও মোবাইল নম্বর। তার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে রেশন দোকান পরিবর্তনের জন্য আর কাগজ কলমে আবেদনের বদলে মোবাইলে টেক্সট মেসেজের (এসএমএস) মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন গ্রাহক। এমনকি, ভুয়ো রেশন কার্ড খুঁজে পাওয়ার ক্ষেত্রেও আমজনতার উপর ভরসা করতে চাইছে খাদ্য দফতর।  সেসব অভিযোগ অনলাইনের মাধ্যমে করতে পারবেন আমজনতা। তার পরিকল্পনাও করছে খাদ্য দফতর। 

কেন এই পরিকল্পনা? 

দফতরের আধিকারিকদের মতে, অনেক সময় এলাকার লোকজন জানেন কোন গ্রাহকের কার্ডটি ভুয়ো বা কে প্রাপ্যের থেকেও বেশি সামগ্রী কোন কার্ড 'ম্যানেজ' করে সংগ্রহ করছেন।। ফলে তাঁরা অনলাইনের মাধ্যমে সেই অভিযোগ জানালে ভুয়ো কার্ড খুঁজে পেতে সুবিধা হবে। রেশন কার্ড ব্যবস্থায় প্রযুক্তিগত পরিবর্তন নিয়ে সোমবার খাদ্য দফতরে বৈঠকে নানা আলোচনার পরে এসব নিয়ে সিদ্ধান্ত হতে চলেছে বলে দফতর সূত্রে খবর। 

তবে 'ই-পস'-যন্ত্রে আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে আর পরিবারের নতুন সদস্যের অন্তর্ভুক্তির সুযোগ থাকবে না। কারণ, ওই যন্ত্রে 'অ্যাড মেম্বার' অপশনটি আর থাকবে না। সেক্ষেত্রে, সদস্যদের নামটি সক্রিয় বা সংযুক্তির জন্য খাদ্য দফতরের ইনস্পেক্টরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে। 

উনিশ দিন পরে সেপ্টেম্বর মাস। তার আগে 'ই-পস'-যন্ত্রে পরিবারের বাকি থাকা সব সদস্যের নাম অন্তর্ভুক্তি নিয়ে সংশয় রয়েছে। কারণ, বহু ক্ষেত্রে 'ই-পস'-যন্ত্রে সংযুক্ত থাকলেও তা খাদ্য দফতরের পোর্টালে 'আপডেট' হয়নি। ফলে সংশ্লিষ্ট কার্ডে সামগ্রী পেতে অসুবিধা হবে গ্রাহকের। তেমনই দাবি করছেন অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলার্স ফেডারেশনের। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসুর বক্তব্য, "সরকারের নির্দেশ মেনে ই-পসে অ্যাড নিউ মেম্বার পদ্ধতি 

অবলম্বন করে আমরা সামগ্রী দিচ্ছিলাম। অ্যাড মেম্বার অপশন বন্ধ করার আগে খাদ্য দফতরের উচিত সব আপডেট করা। তা না হলে মানুষ সমস্যায় পড়বেন। রেশন দোকানের সঙ্গে গ্রাহকের মতান্তর হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।"  দফতরের অবশ্য দাবি, এই 'আপডেট' খুব দ্রুত করে ফেলা হবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন