• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পঞ্চসায়রে উদ্ধার দু’কোটি টাকার ইয়াবা ট্যাবলেট, ধৃত এক, চিন্তায় গোয়েন্দারা

Yaba
বাজেয়াপ্ত হওয়া ইয়াবা ট্যাবলেট।

Advertisement

পঞ্চসায়রে মাদক পাচারকারীকে হাতেনাতে ধরল এসটিএফ। তার কাছ থেকে প্রায় দু’কোটি টাকা মূল্যের নিষিদ্ধ মাদক ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে। এই প্রথম কলকাতায় এত বড় মূল্যের ইয়াবা ট্যাবলেট বাজেয়াপ্ত করল পুলিশ।

রবিবার দুপুরে পঞ্চসায়র থানা এলাকা থেকে আবু তাহের নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জেনেছে, আবু মুর্শিদাবাদের সুতির বাসিন্দা। তার কাছ থেকে প্রায় সাড়ে ১২ কেজি ওজনের এক লাখ ১০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। কলকাতায় যে এই প্রথম ইয়াবা ট্যাবলেট পাচারচক্র ধরা পড়ল, তা নয়, তবে এই প্রথম এত বড় মূল্যের ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার হওয়ায় বিষয়টি ভাবাচ্ছে গোয়েন্দাদের।

এসটিএফের গোয়েন্দাদের দাবি, ইয়াবা ট্যাবলেট তৈরির কাঁচামাল এ দেশের বিভিন্ন ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থার কাছ থেকে চোরাপথে সংগ্রহ করে মাদক কারবারীরা। সেই কাঁচামাল সোজা চলে যায় মণিপুর হয়ে সীমান্ত পেরিয়ে মায়ানমারে। সেখানে আন্তর্জাতিক মাদক পাচারকারীরা ওই কাঁচামাল থেকে ট্যাবলেট তৈরি করে। মাদক হিসাবে সেই ট্যাবলেটের বিশাল বাজার বাংলাদেশে।

ধৃত আবু তাহের।

বাংলাদেশে মদ নিষিদ্ধ হওয়ায়, ইয়াবা খাওয়ার মারাত্মক প্রবণতা রয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি বাংলাদেশে মাদক পাচারকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশ খুব কড়া ব্যবস্থা নেওয়ায়, পাচারকারীরা ক্রমাগত পাচারের রুট বদলাচ্ছে। আগে সমুদ্রপথে চট্টগ্রামের পথে পাচার হত ইয়াবা। অনেক সময় সিলেটের পথেও হত। কিন্তু পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বেশ কিছু মাদক পাচারকারীর মৃত্যু হওয়ায় এ রাজ্য ধরেই নতুন পাচারের এই রুট তৈরি করছে চক্রীরা।

আরও পড়ুন: অ্যাসিডে আক্রান্ত কঙ্গনার দিদি, বাদ গিয়েছে বাঁ কান-স্তন, নষ্ট হয়েছে চোখ

গোয়েন্দাদের দাবি, মায়ানমার থেকে মণিপুর হয়ে মাদক ট্যাবলেট সড়ক পথে চলে আসছে কলকাতায়। সেখান থেকে চলে যাচ্ছে নদিয়ার চাপড়া এবং উত্তর ২৪ পরগনার ঘোজাডাঙা এবং হাকিমপুরের সীমান্তবর্তী বিভিন্ন গ্রামে। সেখানে সাধারণ গ্রামবাসীদের একটা বড় অংশকে ট্যাবলেট পাচারে কাজে লাগানো হচ্ছে।

কলকাতায় ধৃত এই আবু তাহের সেই রুটেই মাদক নিয়ে যাচ্ছিল কি না, বা কলকাতায় অন্য কোনও বড় পাচারচক্র এই সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছে কি না তার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

ছবি: সংগৃহীত।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন