আমেরিকার মিসিসিপি প্রদেশের ব্রুকহাভেন শহরের নির্জন রাস্তা। সেখানে রাস্তার ধারে পড়ে রয়েছে একটি সোফা। তার পাশে একটি টিভি। সেই সোফাতে বসে রয়েছে বাদামী রঙের একটি কুকুর। কিন্তু তাঁর মন ভাল নেই। পরিত্যক্ত হওয়ার বেদনায়তার হৃদয় যে পূর্ণ, তা পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে দিচ্ছে কুকুরটির বিষণ্ণ চাহনি দেখেই।

আসলে কুকুরটির পালক তাকে রাস্তায় সোফার উপর রেখে চলে গিয়েছেন। প্রিয়জন-বিচ্ছিন্ন  মনমরা সারমেয়টি সেই যে বসে আছে, তো বসেই আছে। খাচ্ছেও না, চিৎকারও করছে না। শুধু  ফ্যালফ্যালে দৃষ্টিতে তাকিয়ে রয়েছে। সেই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে এক মহিলার চোখে পড়ে কুকুরটির এই অবস্থা। তা দেখেই তিনি ফোন করেন অ্যানিম্যাল কন্ট্রোল সার্ভিসে।

এর পরই অ্যানিম্যাল কন্ট্রোল অফিসার শ্যারন নর্টন সেখানে আসেন। তিনিই কুকুরটির ওই অবস্থার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেই পোস্টে কুকুরটির অবস্থা বর্ণনার পাশাপাশি তার পালককেও এই কাজের জন্য তীব্র ভর্ৎসনা করেন। সেই পোস্ট দেখেই আবেগতাড়িত হয়েছেন নেটিজেনরা। সারমেয়র এই কষ্ট যে তাঁরাও কিছুটা হলে অনুভব করছেন তা তাঁদের কমেন্টেই স্পষ্ট হয়েছে। 

আরও পড়ুন: #আই লাভ মাই ক্লিভেজ, ইভ টিজিংয়ের প্রতিবাদে নতুন ট্রেন্ড!

পোষ্যকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার ঘটনা এর আগেও সামনে এসেছিল। গত বছর ডিসেম্বরে ইংল্যান্ডের রাস্তার সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছিল সেই ছবি। সেখানে দেখা গিয়েছিল, গাড়ি করে বেড়াতে বেরিয়ে পোষ্যকে রাস্তায় জোর করে ছেড়ে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে গেলেন এক ব্যক্তি। এই অমানবিক কাজের জন্য ওই ব্যক্তির শাস্তিও হয়েছিল।

আরও পড়ুন: লাইভ শোয়ে সাংবাদিককে পেটালেন ইমরানের দলের নেতা! ভাইরাল ভিডিয়ো