চিনে সম্পত্তির আইন অনুসারে, উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য কারও বাড়ি যদি ভাঙা পড়ে, তা হলে সেই পরিবারের প্রত্যেক সদস্য ৪০ বর্গমিটারের বাসস্থান পাবেন। চিনের ঝেজিয়াং প্রদেশের লিশুই শহরে একটি পরিবারের বাড়ি ভাঙা পড়েছিল উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য। তাই সরকার থেকে বেশি জায়গা পাওয়ার জন্য এই পরিবারের সদস্যরা নিজেদের আত্মীয়দের মধ্যেই বিয়ে ও ডিভোর্স করেছেন ২৩ বার! এই সংখ্যক বিয়ে ও ডিভোর্স তাঁরা করেছেন মাত্র দু’সপ্তাহের মধ্যে।

এই জালিয়াতি শুরু করেন প্যান নামের এক ব্যক্তি। বাড়ি ভাঙা পড়ার পর তিনি বিয়ে করে নেন নিজের প্রাক্তন স্ত্রীকে। বিয়ের ছ’দিন পরই ডিভোর্স দিয়ে দেন তাঁকে। এর পর প্যানের সঙ্গে যোগ দেন তাঁর আত্মীয়রা। প্রাক্তন স্ত্রীকে ডিভোর্স দেওয়ার পর প্যান বিয়ে করেন বোনকে। তার পর শ্যালিকাকে। এমনকি প্যানের বাবাও বেশ কয়েক জন আত্মীয়কে বিয়ে করেন। এমনকি সম্পত্তি পেতে প্যান বিয়ে করেন নিজের মাকেও! প্রত্যেককে বিয়ে করে নথিকরণের সময় প্যান দেখিয়েছিলেন স্ত্রীদের বাড়ি অন্য গ্রামে। আসলে বাসভবন ভাঙলে স্ত্রীও সম্পত্তি পাবেন যে! সে জন্যই এ হেন কাণ্ড ঘটিয়েছে ওই পরিবার।

এই জালিয়াতি ধরা পড়ে গত সপ্তাহে। তখন দেখা যায় এক সপ্তাহে তিন বার বিয়ের রেজিস্ট্রেশন করিয়েছেন প্যান। তার পর তদন্ত করতেই উঠে আসে গোটা বিষয়টি। এই জালিয়াতির জন্য ওই পরিবারের ১১ জন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: ভূমিকম্পে প্রাণ বাঁচাতে ছুটছেন পাকিস্তানের মানুষ! ভিডিয়ো ভাইরাল

আরও পড়ুন: ছেলে হবে না মেয়ে? জলহস্তীকে তরমুজ খাইয়ে ‘জানলেন’ দম্পতি!