ভারতের সঙ্গে আলোচনায় তিনি আর আগ্রহী নন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ফোনে কথা বলার পরের দিন একটি মার্কিন দৈনিকে সাক্ষাৎকারে ইমরান জানিয়েছেন, আলোচনার জন্য তিনি আবেদন জানালেও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করার আগে বা পরে কখনওই যোগাযোগ স্থাপনে ভারত উৎসাহ দেখায়নি বলে দাবি ইমরানের।

ভারতের সঙ্গে তাই কথা বলে লাভ নেই জানিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘‘শান্তি ফেরানো এবং আলোচনার খাতিরে আমি যত বার প্রস্তাব দিয়েছি, ওরা সেটাকে তোষামোদ ভেবেছে। আমরা আর কিছু করতে পারব না।’’ আলোচনায় লাভ নেই বলে ইমরান দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তাপ নিয়ে উদ্বেগও প্রকাশ করেছেন। কাশ্মীর পরিস্থিতি এবং জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে পাক সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে আজ বৈঠক করেছেন ইমরান।  

কাশ্মীর-প্রশ্নে বিদেশের মাটিতে প্রচার চালানোর জন্য দলের কর্মী ও সমর্থকদের নির্দেশ দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। বিশ্বের সব মঞ্চে ইমরানের দল কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলে ধরতে চায়। দিল্লি অবশ্য গোড়া থেকেই বলে আসছে, ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের সিদ্ধান্ত ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তা নিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে যাওয়ার প্রশ্নই নেই। পাকিস্তান আজই দাবি করেছে, মধ্যস্থতার জন্য তাদের কাছে বহু প্রস্তাব এসেছে। ভারত তাতে সায় দিলে তবেই এ বিষয়ে এগোনো সম্ভব।