মাটন চাঁপ এ বার বাড়িতেই, রইল রাঁধার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন
মাটন চাঁপ এ বার বাড়িতেই, রইল রাঁধার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি

মাছে-ভাতে বাঙালি কেবল মাছ-ভাত নিয়েই সুখী নয়। কাবার পাতে তার নিত্যনতুন আব্দারের আশকারা চাই-ই চাই। তাই প্রচলিত মাছ-মাংসই শুধু নয়, সামুদ্রিক নানা অজানা প্রাণীকেও সে তরিবত করে পাতে নিতে জানে।  স্কুইড, অক্টোপাস থেকে শুরু করে স্যামন, টুনা সবেতেই তার অবাধ যাতায়াত।

আবার প্রচলিত মাছ-মাংস খাবে বলে যে সাধারণ মাছ-মাংসের ঝোলেই সে সন্তুষ্ট থাকবে এমনও নয়। এখানেও চাই নানা পরীক্ষানিরীক্ষা। রেস্তরাঁয় যা যা ভাল লাগে নিজ হাতযশে সে সবই বাঙালি সহজেই তুলে আনতে পারে ঘরের হেঁশেলে।

ভোজনরসিক বাঙালির পছন্দের অন্যতম পদ মাটন চাঁপ। বাড়িতে বানানো রুমালি রুটি বা বিরিয়ানির সঙ্গে জমে যাক আপনার হাতে বানানো মটন চাঁপ।

আরও পড়ুন: দ্য গ্র্যান্ড-এর রেসিপিতে মুরগির দম এ বার বাড়িতেই

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

 আরও পড়ুন: রেস্তরাঁ স্টাইল সেজুয়ান চিকেন বানিয়ে ফেলুন বাড়িতেই

পদ্ধতি

মাটন কেনার সময় পাতলা করে কাটিয়ে নিন। এ বার টুকরোগুলোকে শিলনোড়ার সাহায্যে একটু থেঁতলে নিন। এর পর মাটনে টক দই, লেবুর রস মিশিয়ে কিছু ক্ষণ রেখে দিন। অনেকে ভিনিগারে ভিজিয়ে রাখতে পছন্দ করেন। সে ক্ষেত্রে দই কম দেবেন। ৩-৪ ঘণ্টা এ ভাবে রাখার পর সব মশলা এতে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এর পর আরও কিছু ক্ষণ তা রেখে দিন। এর পর আঁচ কমিয়ে গরম পাত্রে আধ কাপের মতো তেল দিন। তেল গরম হলে চাঁপের টুকরোগুলো দিয়ে লালচে বাদামি করে ভেজে নিন।

এর পর অন্য একটি পাত্রে মটনের টুকরো ভেজে রাখা তেলেই আধ কাপ পিঁয়াজ কুচি ফেলুন। তত ক্ষণই ভাজুন যত ক্ষণ না এর রং লালচে হয়। কাঁচা লঙ্কা চিরে দিন তেলে। লঙ্কা ও পিঁয়াজ মেশানো গন্ধ ছেড়ে এলে মাংসের টুকরোগুলো মিশিয়ে দিন এর সঙ্গে। মাংসের গা থেকে জল বেরলে আঁচ বাড়িয়ে হালকা কষিয়ে নিন। জল কমলে উপর থেকে কাবাব মশলা ছড়িয়ে নামিয়ে নিন।

তৈরি আপনার সাধের মাটন চাঁপ। নান বা পরোটার সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন এই পদ।