বিশ্বকাপ না জিতলেও নিউজ়িল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে নিয়ে মুগ্ধ ক্রিকেট বিশ্ব। অনেক প্রাক্তন তারকাই প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন উইলিয়ামসনকে। এ বার সেই তালিকায় আরও একটা নাম যোগ হল। তিনি ভারতের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী। 

বুধবার শাস্ত্রী টুইট করেন, ‘‘যে-ভাবে ঘটনা ঘটার পরেও তুমি ধৈর্য ধরে রেখেছ, যে-ভাবে কোনও সম্মানহানি ঘটতে দাওনি, তা এক কথায় অসাধারণ। বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও তুমি যে আভিজাত্য এবং সংযম দেখিয়েছ, তা তুলনাহীন। আমরা সবাই জানি, তোমার একটা হাত বিশ্বকাপের উপরে ছিল।’’ 

নিউজ়িল্যান্ডের হারের পরে অনেকেই আইসিসি এবং আম্পায়ারদের কাঠগড়ায় তুলেছেন। এক দিকে বলা হচ্ছে, ম্যাচ এবং সুপার ওভার টাই হওয়া সত্ত্বেও কেন বেশি বাউন্ডারি মারার নিরিখে ইংল্যান্ডকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করা হবে? অন্য দিকে, আঙুল তোলা হচ্ছে আম্পায়ারদের দিকেও। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে যে বল বাউন্ডারি পেরিয়ে যায়, তাতে ছয় রান দেওয়া ঠিক হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী, রান হওয়া উচিত ছিল পাঁচ। দু’টি ব্যাপার নিয়েই প্রশ্ন করা হয়েছিল উইলিয়ামসনকে। কিন্তু নিউজ়িল্যান্ড অধিনায়ক হেসে প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান। কোনও কড়া মন্তব্য করেননি। শুধু তিনি বলেছেন, ‘‘পরের দিন ঘুম ভেঙে উঠে যেন মনে হচ্ছিল, দুঃস্বপ্ন দেখলাম। তবে এটা ঠিক, ফাইনালে কেউ হারেনি।’’

বিশ্বকাপ না পেলেও উইলিয়ামসনকে বিশ্বকাপের সেরা ক্রিকেটার বাছা হয়েছে। যে পুরস্কার উইলিয়ামসনের হাতে তুলে দিয়ে সচিন বলেছেন, ‘‘তোমার খেলার প্রশংসা সবাই করেছে। তোমার জন্য দারুণ একটা বিশ্বকাপ গেল।’’ উইলিয়ামসনের মানসিকতারও প্রশংসা করেছেন সচিন। 

তবে কারও কারও বক্তব্য, রোহিত শর্মা যেখানে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছেন, রান সংগ্রহকারীদের তালিকায় এক নম্বরে আছেন, সেখানে কেন ভারতীয় ওপেনারকে সেরা ক্রিকেটার বাছা হল না? এই নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কেও। তিনি বলেন, ‘‘ভারত তো ফাইনালে উঠতে পারেনি। সাধারণত দেখা যায়, যারা ফাইনালে উঠেছে, তাদের মধ্যে থেকেই সেরা ক্রিকেটার বেছে নেওয়া হয়। সে ক্ষেত্রে উইলিয়ামসন খারাপ পছন্দ নয়।’’ 

ভারতীয় দলের সদস্যরা ভাগে ভাগে দেশে ফিরেছেন। আগামী ১৯ তারিখ ওয়েস্ট ইন্ডিজগামী দল নির্বাচন। ওয়েস্ট ইন্ডিজে কোচ হিসেবে শাস্ত্রীই যাচ্ছেন। তার পরে অবশ্য নতুন করে কোচ এবং সাপোর্ট স্টাফ বেছে নেওয়া হবে। গত কালই ভারতীয় বোর্ড বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নতুন কোচ খোঁজার কথা জানিয়ে দিয়েছিল। তবে এও বলা হয়েছে, শাস্ত্রী এবং ভারতীয় ক্রিকেটের বাকি সাপোর্ট স্টাফকে নতুন করে আবেদন পত্র জমা দিতে হবে না। তাঁদের নাম এমনিতেই বিবেচিত হবে। শোনা যাচ্ছে, কপিল দেবের নেতৃত্বে অ্যাড হক কমিটি বেছে নিতে পারে ভারতের নতুন কোচকে। এর আগে কপিল, অংশুমান গায়কোয়াড় এবং শান্তা রঙ্গস্বামীর কমিটি ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের কোচ বেছে নিয়েছিল। তবে সুপ্রিম কোর্টের পরবর্তী শুনানির আগে কিছু হবে না বলেই জানা গিয়েছে।