• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সাই-তে ট্রায়ালে আসছেন ‘বোল্টের রেকর্ড ভাঙা’ শ্রীনিবাস

Srinivasa Gowda
বোল্টের রেকর্ড ভাঙা শ্রীনিবাসকে ডাকা হল সাইয়ের ট্রায়ালে। ছবি: টুইটার।

কাদামাখা জমিতে খালি পায়ে দৌড়ে রেকর্ড গড়েছেন শ্রীনিবাস গৌড়া। কর্নাটকের ২৮ বছরের সেই যুবককে এ বার সাইয়ের সেরা কোচদের সামনে ট্রায়ালে ডাকা হল। গৌড়ার কাছে বেঙ্গালুরুর সাই কেন্দ্রে আসার ট্রেনের টিকিটও পৌঁছে গিয়েছে বলে টুইট করেছেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু।

কাম্বালা উৎসবে পালিত মোষের সঙ্গে টানা ১৪২.৫ মিটার মাত্র ১৩.৬২ সেকেন্ডে পার করেন শ্রীনিবাস। তাঁর এই গতি দেখে অবাক হয়ে যান সবাই। তার প্রায় সঙ্গে সঙ্গে জামাইকার তারকা দৌড়বিদ উসেইন বোল্টের সঙ্গে গৌড়ার গতির তুলনা শুরু হয়ে যায়। বোল্ট মাত্র ৯.৫৮ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে রেকর্ড গড়েছিলেন। হিসেব করে দেখা গিয়েছে, গৌড়া ১০০ মিটার অতিক্রম করেছেন ৯.৫৫ সেকেন্ডে। বোল্টের থেকে ০.০৩ সেকেন্ড সময় কম নিয়েছেন তিনি। এর পরেই শ্রীনিবাসকে নিয়ে চর্চা শুরু হয় নেট দুনিয়ায়।

কর্নাটকের মুদাবিদরি গ্রামের যুবকের দুরন্ত গতির কথা কানে আসে কেন্দ্রীয় ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজুর। শনিবার টুইট করে তিনি জানিয়েছেন, “গৌড়াকে সাইয়ের সেরা কোচদের সামনে ট্রায়ালের জন্য ডাকা হবে। ভারতের সমস্ত প্রতিভাকেই দেখে নেওয়া হবে। এই ব্যাপারে আমি নিশ্চিত করছি।” পরে তিনি জানান, গৌড়ার বেঙ্গালুরু সাই কেন্দ্রে আসার যাবতীয় ব্যবস্থা হয়ে গিয়েছে। সোমবারই তিনি সাই কেন্দ্রে এসে পৌঁছবেন বলেও জানান রিজিজু। রিজিজুর উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন অনেকে। 

আরও পড়ুন: আর দু’-এক জনের উপর নির্ভরশীল নয় দল, বলছেন বাংলার অধিনায়ক

গৌড়ার শারীরিক সক্ষমতার পরিচয় পেয়ে আনন্দ মাহিন্দ্রা টুইট করেন, ‘‘এই লোকটার শরীর দেখলেই বোঝা যায় অ্যাথলেটিক্সে অসম্ভব সব রেকর্ড গড়তে পারেন। কিরেন রিজিজু ওকে ১০০ মিটার স্প্রিন্টের জন্য ট্রেনিং দিন। অথবা কাম্বালাকে অলিম্পিক ইভেন্টে করা হোক।”

 

এ দিকে গতির ঝড় তুলে  যিনি সব আলো শুষে নিয়েছেন, সেই গৌড়া বলছেন, ‘‘মানুষ বোল্টের সঙ্গে আমাকে তুলনা করছেন। বোল্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। আমি তো কেবল জলকাদার জমিতে দৌড়ই।’’ 

 

আরও পড়ুন:  ‘অনেকে স্রেফ সমালোচনা করার জন্য টাকা পান’, বুমরার সমর্থনে আক্রমণাত্মক শামি

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন