এনআরএস-কাণ্ডে পাঁচ অভিযুক্তের জামিন হয়ে গেলেও, ওই মামলায় তাদের বিরুদ্ধে আরও কড়া ধারা সংযুক্তির আবেদন জানাল কলকাতা পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর,  সোমবার ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩০৭ ধারা (খুনের চেষ্টা) যোগ করার আবেদন জানানো হয়। শিয়ালদহ আদালতে সেই আবেদন মঞ্জুরও করেন বিচারক।

নবান্নে জুনিয়ার ডাক্তারদের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কথা দিয়েছিলেন, সরকারি হাসপাতালে পরিকাঠামোর উন্নতি, ডাক্তারদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার পাশাপাশি এনআরএস কাণ্ডে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।

ইতিমধ্যে সেই প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গিয়েছে। কিন্তু পয়লা জুলাই অভিযুক্তদের জামিন হয়ে যাওয়ায় উষ্মা প্রকাশ করেন জুনিয়ার চিকিৎসকেরা। এ নিয়ে নতুন করে প্রতিক্রিয়া শুরু হয় চিকিৎসক মহলে। বিষয়টি আঁচ করতে পেরেই ওই মামলায় পুলিশ ৩০৭ ধারা যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা। 

আরও পড়ুন: বাড়ি তৈরির জন্যে ‘কাটমানি’ কেন? তৃণমূল কাউন্সিলরের নামে ব্যানার কলকাতায়

আরও পড়ুন: রাতভর ট্যাঙ্ক ধ্বংসকারী ‘নাগ’-এর সফল পরীক্ষা করল ভারত

নতুন ধারা যুক্ত হওয়ায় ফের অভিযুক্তদের হেফাজতে নিতে পারে এন্টালি থানার পুলিশ। এ দিন কলকাতা পুলিশের তরফে শিয়ালদহ আদালতে বিচারককে জানানো হয়, এই তদন্তে বেশ কয়েকজন চিকিৎসকের বয়ান নেওয়া হয়েছে। সেই বয়ান অনুযায়ী পরিবহ মুখ্যোপাধ্যায়কে যে ভাবে মারা হয়েছিল, তাতে এই ধারা যুক্ত করা দরকার।