উত্তরপ্রদেশের মথুরায় লগ্নি সংস্থার ব্যবসা ফেঁদে যাঁর বিরুদ্ধে লোক ঠকানোর অভিযোগ উঠেছে, সেই শ্যামসুন্দর দে কয়েক বছর ধরে বাংলা সিনেমার প্রথম সারির প্রযোজক!

কলকাতা পুলিশ জানিয়েছে, মথুরার আদালত থেকে দু’জনকে গ্রেফতার করার যে-নির্দেশ এসেছে, শ্যামসুন্দর তাঁদের অন্যতম। কিন্তু তাঁরা দু’জনেই বেপাত্তা! প্রশ্ন উঠেছে, যিনি নিয়মিত বাংলা ছবি প্রযোজনা করে চলেছেন, তিনি কী ভাবে গা-ঢাকা দিয়ে থাকতে পারেন? পুলিশের একাংশের বক্তব্য, মামলা হয়েছে মথুরায়। সেখানকার পুলিশ উদ্যোগী হয়ে কলকাতায় এলে তাঁদের সঙ্গে সব রকম সহযোগিতা করা হবে।

শ্যামসুন্দর এই মুহূর্তে এমন একটি ছবির প্রযোজনা করছেন বলে টলিউড সূত্রের খবর, যার শুটিং চলতি মাসেই শুরু হওয়ার কথা। ‘ব্যোমকেশ’ নামে সেই ছবিতে রয়েছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। শ্যামসুন্দর বৃহস্পতিবার ফোনে বলেন, ‘‘আমি আইন মেনে চলি। আমার বিরুদ্ধে যা যা অভিযোগ উঠেছে, আমি উচ্চ আদালতে তা নিয়ে লড়াই করছি। সব মিলিয়ে দু’লক্ষ ১২ হাজার টাকা ফেরত না-দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। আমি যাঁদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলাম, তাঁদের ৯৯ শতাংশ টাকা ফেরত দিয়ে দিয়েছি।’’

টালিগঞ্জের সিনেমা পাড়ায় শ্যামসুন্দর এখন পরিচিত নাম। সেখান থেকে জানা গিয়েছে, শ্যামসুন্দর ঠান্ডা পানীয় এবং রিয়েল এস্টেটের ব্যবসা করে প্রচুর টাকা করেছেন এবং সেই টাকাই নাকি ছবি প্রযোজনায় বিনিয়োগ করছেন। ২০১৩ সালে এক বার অবৈধ লগ্নি ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছিল শ্যামসুন্দরের নাম। এবং সেই সময় ওই ব্যক্তি ঘনিষ্ঠদের জানিয়েছিলেন, সব কিছু তিনি সামলে নিয়েছেন।

প্রথম ছবি ছিল ২০১৪ সালে— ‘যদি লাভ দিলে না প্রাণে’। তার পরে ‘হারকিউলিস’, ‘কাট মুন্ডু’, ‘আসছে বছর আবার হবে’-সহ বেশ কিছু ছবি প্রযোজনা করেছেন শ্যামসুন্দর। মাঝখানে বছর দেড়েক প্রযোজনার কাজ বন্ধ করে দেন তিনি। ২০১৭ সালে ফিরে আসেন ‘দ্যাখ কেমন লাগে’ ছবি দিয়ে। সেই ছবির প্রযোজনার সঙ্গে অভিনেতা প্রসেনজিৎও যুক্ত ছিলেন। টলিউড সূত্রের খবর, মাঝেমধ্যেই বড় বড় হোটেলে পার্টি দিতেন শ্যামসুন্দর। সেই সব পার্টিতে টলিউডের প্রচুর অভিনেতা-অভিনেত্রীকে দেখা যেত। টলিউডের এক অভিনেত্রীর সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতার কথাও শোনা গিয়েছে। বিজনেস ক্লাসে মাঝেমধ্যেই বিদেশ যাতায়াত করতেন। সম্প্রতি ক্রিকেট বিশ্বকাপ দেখতে শ্যমসুন্দর লন্ডন গিয়েছিলেন বলেও টলিউডের খবর।

শ্যামসুন্দরের বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন পরমব্রত। তাঁর সঙ্গে এ দিন যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছিল। পরমব্রত ফোনে জানান, তিনি ইটালিতে আছেন। এই মুহূর্তে তাঁর পক্ষে কথা বলা সম্ভব নয়।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।