চার দিন শুনানির পরেও নিষ্পত্তি হল না রাজীব কুমারের আগাম জামিন সংক্রান্ত মামলার। সোমবার কলকাতা হাইকোর্টে মামলার শুনানি হয়। তবে রায়দান স্থগিত রাখে বিচারপতি শহিদুল্লা মুন্সি এবং বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ। ফলে কলকাতার প্রাক্তন কমিশনারের জামিনের বিষয়টি সেই ঝুলেই রইল।

গত তিন দিন ধরে রাজীব কুমারের আগাম জামিনের শুনানি চলছিল আদালতে। সোমবার সকালেও রুদ্ধদ্বার কক্ষে, শুনানি শুরু হয়। সেখানে সিবিআইয়ের আইনজীবীরা তাঁর জামিনের বিরোধিতা করলেও, এ দিনই রায় ঘোষণা হয়ে যাবে বলে আশা করেছিলেন রাজীবের শুভান্যুধায়ীরা। কিন্তু শেষমেশ নিরাশই হতে হল তাঁদের।

এর আগে, আলিপুর জেলা ও দায়রা আদালতে রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদন নাকচ হয়ে যায়। তার পরই গত সোমবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তাঁর স্ত্রী সঞ্চিতা কুমার। বুধবার এই মামলার প্রথম শুনানি শুরু হয়। শুক্রবারও এক দফা শুনানি হয়।

আরও পড়ুন: মিলেছে বহু তথ্য, দাবি সিবিআই-এর, নারদকাণ্ডে ফের আদালতে পেশ মির্জাকে​

আরও পড়ুন: মাঝ আকাশে বিমানের ইঞ্জিনে আগুন! পাইলটের দক্ষতায় রক্ষা ১৮০ যাত্রীর​

অবশ্য শুনানি শুরু হওয়ার আগেই রাজীবকে আত্মসমর্পণের পরামর্শ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার শহিদুল্লা মুন্সি এবং বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চে অবিলম্বে শুনানির জন্য আবেদন জানান রাজীব কুমারের আইনজীবীরা। তখন বিচারপতি মুন্সি ওই আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেন,  ‘‘জরুরি ভিত্তিতে শুনানির প্রয়োজন কেন মনে করছেন?  যান, গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে বলুন মক্কেলকে।’’