• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

একুশের মঞ্চে ত্রাণের ত্রিপল? 

TMC
মঞ্চে টাঙানো ত্রিপল। নিজস্ব চিত্র

তৃণমূলের শহিদ দিবস পালন ঘিরে বিতর্কের কেন্দ্রে ত্রাণের ত্রিপল।

মঙ্গলবার, ২১ জুলাই উপলক্ষে মঞ্চ তৈরি হয়েছিল বিধাননগর পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডে। সেখানে শহিদ দিবসের কর্মসূচি পালিত হয়। কিন্তু কংগ্রেস ও সিপিএমের দাবি, ওই মঞ্চে টাঙানো ত্রিপলে স্টিকার লাগানো ছিল। স্টিকারের লেখা থেকে স্পষ্ট, আমপানে বিপর্যস্তদের জন্যই পাঠানো হয়েছিল ওই ত্রিপল (আনন্দবাজার অবশ্য বিষয়টির সত্যতা যাচাই করেনি)। বিরোধীদের প্রশ্ন, সরকারের দেওয়া ত্রাণের ত্রিপল মঞ্চ তৈরিতে ব্যবহৃত হল কী ভাবে? শাসক দলের দাবি, ঘটনাটি বিরোধীদের চক্রান্ত।

এই ঘটনা ঘিরে রাজনৈতিক কাজিয়া শুরু হয়েছে রাজারহাট-গোপালপুর এলাকায়। তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা দীপ্তেশ সাহার অভিযোগ, ‘‘এটা বিরোধীদের চক্রান্ত। আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে স্টিকার লাগিয়ে তার ছবি তুলে মিথ্যা প্রচার করা হচ্ছে।’’ পাল্টা দাবিতে কংগ্রেস নেতা সোমেশ্বর বাগুই বলেন, ‘‘ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত কত জনকে ত্রাণ দেওয়া হয়েছে, এর আগে সেই তালিকা প্রকাশের দাবি জানিয়েছিলাম। সরকার যেখানে তৃণমূলের, সেখানে বিরোধীরা স্টিকার লাগাল, আর শাসক দল টেরই পেল না! এ কথা কেউ বিশ্বাস করবে না।’’ সিপিএম নেতা শুভজিৎ দাশগুপ্তের কথায়, ‘‘এ সব যুক্তিহীন কথা বলে সত্যকে আড়াল করার চেষ্টা করছে শাসক দল। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তেরা কী পেয়েছেন, এ দিনের ঘটনা তা দেখিয়ে দিল।’’

স্টিকার সাঁটা ত্রিপল। (আনন্দবাজার অবশ্য বিষয়টির সত্যতা যাচাই করেনি)

দীপ্তেশের দাবি, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর এ দিনের বক্তৃতায় ভয় পেয়েছেন ওঁরা। তাই দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চক্রান্ত করা হয়েছে। শহিদ দিবসে ওই স্টিকার লাগানো অবস্থায় কর্মসূচি হবে, এটাও কি বিশ্বাসযোগ্য? উচ্চতর নেতৃত্বকে ঘটনার কথা জানাব।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন