• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

একসঙ্গে আক্রান্ত আট জন নার্স, বন্ধ হাসপাতাল

1
প্রতীকী চিত্র

এক হাসপাতালের আট জন নার্স একই সঙ্গে সংক্রমিত হলেন। টিটাগড়ের ওই বেসরকারি হাসপাতালের এক নার্স সোমবার আক্রান্ত হয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার আরও আট জনের নমুনা রিপোর্ট পজ়িটিভ এসেছে। 

ওই রিপোর্ট আসার পরেই হাসপাতালটি বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। প্রশাসন জানিয়েছে, হাসপাতাল চত্বর-সহ পুরো এলাকাটি গণ্ডিবদ্ধ এলাকা হিসেবে সিল করে দেওয়া হয়েছে। তবে হাসপাতালটি বিটি রোডের উপরে হওয়ায় প্রশাসনের চিন্তা বেড়েছে। চিন্তায় রয়েছে স্বাস্থ্য দফতরও। একই সঙ্গে আট জন নার্সের আক্রান্ত হওয়া গোষ্ঠী সংক্রমণ কি না, তা নিয়েও ভাবনা শুরু করেছেন স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা। এ দিকে নার্সদের সংক্রমণের খবরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, সম্প্রতি ওই হাসপাতালে ভর্তি থাকা এক রোগীর লালারসের নমুনার রিপোর্ট পজ়িটিভ আসে। তার পরে তাঁকে কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে তত দিনে হাসপাতালের চিকিৎসক এবং বেশ কয়েক জন নার্স তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন। এরই মধ্যে টিটাগড় স্টেশন এলাকার বাসিন্দা এক নার্স অসুস্থ হয়ে ওই হাসপাতালেই ভর্তি হন। সোমবার তাঁর রিপোর্টও পজ়িটিভ আসে। এর পরেই অন্য নার্সদের লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন: লকডাউনে সন্তানের সঙ্গে সাক্ষাৎ হোক ভিডিয়োয় 

আরও পড়ুন: বডিগার্ড লাইন্সে আরও কঠোর নিরাপত্তা

ওই হাসপাতালের ডিরেক্টর মিতা দাস জানান, রোগী, না আক্রান্ত নার্স— কার থেকে এই আট জন নার্স সংক্রমিত হলেন, তা তাঁরা বুঝতে পারছেন না। হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগী এবং কর্মী মিলিয়ে মোট ৩২ জনের লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর, ওই হাসপাতালের সাধারণ বিভাগের রোগীদের ছুটি দিয়ে দিতে বলা হয়েছে। সিসিইউ বিভাগের রোগীদের অন্যত্র সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের রোগী-সহ ঠিক কত জন গত কয়েক দিনে ওই আট জন আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেছেন, তারও খোঁজ চালাচ্ছে স্বাস্থ্য দফতর। এখানেই গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকেরা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন