• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মেট্রোর অ্যাপ নিয়ে বিভ্রান্তি ও ভোগান্তিতে বিরক্ত যাত্রীরা

Kolkata Metro
সাহায্য: ই-পাস কী ভাবে নিতে হবে, যাত্রীদের তা দেখিয়ে দিচ্ছেন এক মেট্রোকর্মী। সোমবার, দমদম স্টেশনে। ছবি: সুমন বল্লভ

কর্তৃপক্ষের মতো যাত্রীরাও ভরসায় ছিলেন কলকাতা মেট্রোর অ্যাপের। কিন্তু সোমবার, পরিষেবা শুরুর দিনে সমস্যা পোহাতে হল সেই অ্যাপ নিয়েই।

মেট্রোর দু’রকম ছবি দেওয়া দু’টি অ্যাপ নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল দিন কয়েক আগেই। প্লে স্টোর থেকে গুগল আপাতত পুরনো অ্যাপটি সরিয়ে নিয়েছে। কিন্তু নতুন অ্যাপের ব্যবহারও অনায়াস হয়নি যাত্রীদের কাছে। 

করোনা পরিস্থিতিতে বাড়িতে বসে অনলাইনে রিচার্জ, ই-পাস বুকিং এবং ট্রেনের সময় জানার মতো দরকারি পরিষেবা পাওয়ার আশ্বাস মিলেছিল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। কিন্তু যাত্রীদের কেউই ওই সুবিধা সহজে পাননি বলে অভিযোগ। 

আরও পড়ুন: ৮ হাজার পুরোহিতকে ভাতা দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর​

যাত্রীদের অনেকেই জানিয়েছেন, মেট্রোর অ্যাপ থেকে অনলাইনে স্মার্ট কার্ড রিচার্জ করার সময়ে টাকা কেটে নেওয়ার পরেও রিচার্জ সম্পূর্ণ হল কি না তা সঙ্গে সঙ্গে জানা যায়নি। ফলে যাত্রীদের মধ্যে এ নিয়ে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। টালিগঞ্জের বাসিন্দা সন্দীপ পাত্র বলেন, ‘‘অ্যাপ দিয়ে ২০০ টাকার রিচার্জ করার পরে কোনও মেসেজ পাইনি। রিচার্জ ঠিকঠাক হল কি না, তা-ও বুঝতে পারিনি। অনেক পরে এসএমএস এসেছে।’’

মেট্রো সূত্রের খবর, অনলাইনে রিচার্জের ক্ষেত্রে যাত্রীদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়ার পরে দু’টি প্রক্রিয়া বাকি থাকে। স্টেট ব্যাঙ্কের মাধ্যমে ওই লেনদেন হওয়ায় প্রথমে টাকা তাদের (ব্যাঙ্কের) কাছে পৌঁছয় এবং পরে তা রেলের ঘরে আসে।

দু’টি প্রক্রিয়াই সম্পূর্ণ হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখার একটি পদ্ধতি অ্যাপে রয়েছে। তাতে ক্লিক করেই লেনদেন সম্পূর্ণ হওয়ার বিষয়টি জানা সম্ভব। নিয়ম অনুযায়ী, ওই টাকা রেলের অ্যাকাউন্টে পৌঁছলেই যাত্রীর দেওয়া মোবাইল নম্বরে এসএমএস ঢোকার কথা। কোনও কারণে সার্ভারের গতি কম থাকলে মেসেজ পেতে দেরি হতে পারে। তবে সে ক্ষেত্রেও লেনদেনের বিষয়টি দেখা যাবে। এ ক্ষেত্রে মেট্রোর তরফে রিচার্জের বিভিন্ন ধাপ সম্পর্কে যাত্রীদের আগেভাগে জানানো হলেও শেষ পর্বে কোথায় গেলে হয়ে যাওয়া লেনদেনের তথ্য মিলবে, তা আর তুলে ধরা হয়নি বলে অভিযোগ। আর তাতেই বিভ্রান্তি বেড়েছে।

মেট্রোর চিফ অপারেশনস ম্যানেজার সাত্যকি নাথ বললেন, ‘‘সমস্যার কথা শুনেছি। দ্রুত মেটানোর চেষ্টা হচ্ছে। স্টেশন সুপার এবং বুকিং কাউন্টারের কর্মীদেরও বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে, যাতে যাত্রীরা অভিযোগ নিয়ে এলে সাহায্য পান।’’

আরও পড়ুন: রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার পার, স্বস্তি দিচ্ছে সুস্থতার হার​

মেট্রোর নিজস্ব অ্যাপ খুলেও যাত্রীদের অনেকে ই-পাসের লিঙ্ক পাননি বলে অভিযোগ। ফলে ওই যাত্রীদের সাহায্য নিতে হয়েছে ‘পথদিশা’ অ্যাপের। ই-পাসের লিঙ্ক খোলা নিয়ে রবিবার রাতে সমস্যার কথা জানিয়েছিলেন যাত্রীদের অনেকেই। ওই সমস্যা মেটাতে আজ, মঙ্গলবার থেকে অপেক্ষাকৃত সহজে খোলে, এমন একটি অতিরিক্ত লিঙ্ক দেওয়া হচ্ছে বলে খবর। এর ফলে যে কোনও মোবাইলে ইন্টারনেট থাকলেই ওই লিঙ্ক খুলবে।

মেট্রোর অ্যাপে স্মার্ট কার্ড রিচার্জের জন্য নির্দিষ্ট আইকনের নীচেই রয়েছে যাত্রী পরিষেবা সংক্রান্ত সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আইকন ‘প্যাসেঞ্জার সার্ভিস আপডেট’। সেখানে ই-পাস বুকিং ছাড়াও বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের ঢোকা ও বেরোনোর পথ এবং দিনের কোন সময়ে কত মিনিট অন্তর ট্রেন চলছে, সে সম্পর্কে তথ্য থাকার কথা। কিন্তু ওই আইকনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তিনটি ইউআরএল-এর একটিও খোলেনি। এমনকি, মেট্রোর ই-পাস বুকিংয়ের ইউআরএল-এ ভুল ছিল বলেও অভিযোগ। ফলে যাত্রীরা অনেকেই অ্যাপ ব্যবহারের কোনও সুফল পাননি। এ বিষয়ে মেট্রোর চিফ অপারেশনস ম্যানেজার জানান, ওই অ্যাপ আরও হাল্কা এবং উন্নত করার কাজ চলছে। যাতে সব ধরনের স্মার্টফোনেই তা ব্যবহার করা যায়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন