মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আবার ভেনেজুয়েলার বিরোধী নেতা হুয়ান গাইডোর পাশে দাঁড়ালেন। গাইডোকে কাল ফোন করেছিলেন ট্রাম্প। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘‘নিকোলাস মাদুরোর বিরুদ্ধে আজ ভেনেজুয়েলা জুড়ে বড়সড় প্রতিবাদ হচ্ছে। স্বাধীনতার জন্য লড়াই শুরু হয়েছে!’’

আগেও গাইডোর প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন ট্রাম্প। তিনি ফোনে ভেনেজুয়েলার স্বঘোষিত কার্যনির্বাহী প্রেসিডেন্ট গাইডোকে অভিনন্দন জানান। ট্রাম্পের দাবি, ভেনেজুয়েলায় গণতন্ত্রের শাসন ফিরিয়ে আনতে আমেরিকা পাশে আছে। তাই গাইডোর নেতৃত্বে ভেনেজুয়েলা এগিয়ে যাক। গাইডোও ধন্যবাদ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্টকে।

অবশ্য কট্টর বাম নেতা তথা ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট মাদুরোর অভিযোগ, গাইডো আমেরিকা-সমর্থিত সামরিক অভ্যুত্থানের ষড়যন্ত্রের অংশীদার। গত কালই তিনি অভিযোগ করেছেন, ‘‘ট্রাম্প নিঃসন্দেহে আমাকে মেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন। কলম্বিয়ার সরকার ও মাফিয়াদের এই কাজে লাগানো হবে।’’ যদিও ওয়াশিংটন এবং বোগোটা ওই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে।

সেনা, পুলিশ এবং আদালত অবশ্য এখনও মাদুরোরই পক্ষে। ফলে ভেনেজুয়েলার শীর্ষ আদালত গাইডোকে দেশ ছাড়তে দিচ্ছে না। কিন্তু গাইডো এই সপ্তাহ থেকেই পথে নেমে মাদুরোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ডাক দিয়েছেন। গত কালও কারাকাস-সহ ভেনেজুয়েলার বিভিন্ন শহরে মাদুরোর বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে প্ল্যাকার্ড হাতে রাস্তায় নেমেছিলেন বহু মানুষ। প্ল্যাকার্ডগুলিতে লেখা ছিল, ‘সেনাবাহিনী: নিজেদের মর্যাদা ফেরাও’, ‘একনায়কত্ব শেষ হোক’, ‘গাইডোই প্রেসিডেন্ট’। সেনার উদ্দেশে গাইডোর বার্তা: ‘‘আপনাদের পরিবারের জন্যও আমাদের লড়াই। সেই মানুষদের মারবেন না।’’