সদ্য ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার হয়েছেন লিয়োনেল মেসি। ষষ্ঠ বার সেরা হওয়ার পথে মেসি পিছনে ফেলেছেন ভার্জিল ফান উইক, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, মহম্মদ সালাহ, সাদিয়ো মানেদের।

বর্ষসেরা বেছে নেওয়া হয় বিশ্বের সব জাতীয় দলের কোচ ও অধিনায়কের ভোটে। ভোট দেন মিডিয়ার নির্বাচিত প্রতিনিধিরাও। সমর্থকদেরও অংশ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। কোচ, অধিনায়ক, মিডিয়ার প্রতিনিধি এবং সমর্থক— এই চার গ্রুপই সমান গুরুত্ব পায় সেরা বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে।

এই বছরের সেরা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে মেসির ভোট পেয়েছিলেন সাদিয়ো মানে, রোনাল্ডো ও ডি জং। রোনাল্ডোর ভোট কিন্তু মেসি পাননি। তাঁর পছন্দের প্রথম ভোট পেয়েছেন মাথিস ডে লাইট। পছন্দের দ্বিতীয় ও তৃতীয় ভোট পেয়েছেন ডি জং ও কিলিয়ান এমবাপে।

আরও পড়ুন: কোথায় সমস্যা ঋষভ পন্থের, চিনিয়ে দিলেন কপিল

আরও পড়ুন: চোটের জন্যই কি ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন ধোনি?​

ব্যাপারটা এমন মোটেই নয় যে মেসিকে এ বারই প্রথম ভোট দিলেন না রোনাল্ডো। ফিফার দেওয়া তথ্যে পরিষ্কার যে, এক দশকেরও বেশি সময়ে রোনাল্ডো কখনই ভোট দেননি মেসিকে। ২০১০ থেকে ধরলে রোনাল্ডোর মোট ভোটের মধ্যে ১৭ বার ভোটই পেয়েছেন তাঁর সতীর্থরা। এ বারও তাঁর ভোট পেয়েছেন সতীর্থ মাথিস ডে লাইট।

মেসি আবার এই সময়ের মধ্যে ১৯ বার ভোট দিয়েছেন সতীর্থদের। গত দুই বছরে যদিও মাত্র একবার সতীর্থকে ভোট দিয়েছেন তিনি। আর সেটা ঘটেছে এ বার। ডি জংকে ভোট দিয়েছেন তিনি। তবে তাঁর বেছে নেওয়া তিন সেরার মধ্যে রোনাল্ডোকেও রেখেছেন এলএম টেন।