• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কার্স্টেনের এই এক পরামর্শেই ব্যাটিংয়ে উন্নতি হয় তরুণ কোহালির

Kirsten-VK
কার্স্টেনের সঙ্গে কোহালি। —ফাইল চিত্র।

২০০৮ সালে এক দিনের ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল বিরাট কোহালির। কিন্তু প্রথম দিকে বড় রান আসছিল না। উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসছিলেন তিনি। আর তখন কোচ গ্যারি কার্স্টেন বাতলে দিয়েছিলেন রাস্তা।

সেই ঘটনাই প্রকাশ্যে এনেছেন প্রাক্তন কোচ। দক্ষিণ আফ্রিকার একদা ওপেনার শ্রীলঙ্কায় এক দিনের সিরিজের কথা তুলে এনেছেন। এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, “কোহালির সঙ্গে যখন প্রথম বার দেখা হয়, ওর মধ্যে দুর্দান্ত সম্ভাবনা ও প্রতিভা চোখে পড়েছিল। ও ছিল তরুণ। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে বুঝতে পেরেছিলাম যে নিজের সেরাটা মেলে ধরতে ও পারছে না। তাই, আমরা অনেক বার কথা বলেছিলাম।”

আরও পড়ুন: সেরা ক্যাপ্টেন কে? সামান্য পয়েন্টে সৌরভকে হারিয়ে দিলেন ধোনি

আরও পড়ুন: জিতিয়ে আসতে পারেননি বলেই হতাশ ছিলেন নায়ক​

ব্যাটিং থেকে ঝুঁকি ছেঁটে ফেলার পরামর্শ দিয়েছিলেন কার্স্টেন। তাঁর কথায়, “শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আমরা যখন খেলছিলাম, তখন ও দারুণ ব্যাট করছিল একটা ম্যাচে। কিন্তু তিরিশের ঘরে আসার পর বোলারকে লং-অনের মাথার উপর দিয়ে তুলে মারার সিদ্ধান্ত নিল। আর তা করতে গিয়েই আউট হল। আমি তখন ওকে বললাম যে, নিজের খেলাকে যদি পরের পর্যায়ে নিয়ে যেতে হয়, তবে জমিতে বল রাখতে হবে। লং-অনে এক রানের জন্য মারা উচিত ছিল। তুমি অনেক বলই তুলে তুলে মারতে পারো। কিন্তু তার সঙ্গে ঝুঁকি জড়িয়ে থাকে। আমার মনে হয় সেটা ওর মনে ধরেছিল। কলকাতায় এসে তার পরই ও সেঞ্চুরি করেছিল।”

বিরাট কোহালির সঙ্গে রসায়ন নিয়ে ২০১১ সালে বিশ্বকাপজয়ী কোচ বলেছেন, “আমাদের সম্পর্ক ক্রমশ গড়ে উঠেছিল। ও তরুণ ক্রিকেটার হিসেবে আসত আমার কাছে। আমি বলতাম, তোমার এখনও অনেক দূর যাওয়ার আছে।” কার্স্টেনের এই এক পরামর্শেই ব্যাটিংয়ে ক্রমশ উন্নতি করতে থাকে তরুণ কোহালি।

মহেন্দ্র সিংহ ধোনির নেতৃত্বে ভারতের বিশ্বকাপ জেতার নেপথ্যে বড় অবদান ছিল কোহালির। ক্রমশ নিজেকে বিশ্বের সেরা ক্রিকেটারদের মধ্যে নিয়ে আসেন তিনি। এই মুহূর্তে কোহালি ওয়ানডে, টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে সেরা ব্যাটসম্যানদের তালিকায় যথাক্রমে এক নম্বরে, দুই নম্বরে ও ১০ নম্বরে রয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর শতরানের সংখ্যা ৭০। তিন ফরম্যাটেই তাঁর গড় এখন পঞ্চাশের উপরে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন