• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘মাঠটা মিস করব’, আফসোস অরিন্দমের

Arindam Sil
পরিচালক অরিন্দম শীল। -নিজস্ব চিত্র।

২০ ওভারের উত্তেজনা আর এন্টারটেনমেন্ট। আইপিএল মানেই অ্যাড্রিনালিন ক্ষরণ পরিচালক অরিন্দম শীলের কাছে। মাঠে যেতে না পারার দুঃখ কীভাবে ভুলবেন? 

এ বছর মাঠ নেই। তাই টিভি রুম সাজিয়ে গুছিয়ে নিয়েছেন আগেভাগে। ছবি শেয়ার করেছেন সোশ্যালে। তবে পুরোটাই শুধু আইপিএল-এর কথা ভেবে নয়, জানালেন পরিচালক স্বয়ং।ক্রিকেটের প্রতি আর পাঁচজন বাঙালির মতোই আকর্ষণ তাঁর। অরিন্দম বলছেন, ‘‘সব খেলাই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দেখি। আইপিএলের মরসুমে মাঠে যাই।’’

প্রতি বছর মাঠে গিয়ে ক’দিন খেলা দেখা চাই-ই তাঁর। ‘‘আরব আমিরশাহির মাঠে যাওয়ার কোনও উপায় নেই। থাকলে একবার ট্রাই করতাম’’ হাসতে হাসতে মন্তব্য পরিচালকের। এ বছর মাঠটাকে মিস করবেন তিনি। 

আরও পড়ুন: দ্বাদশচক্রে আইপিএল

করোনা আবহে কাজের চাপ কম। তাই হয় বাড়িতে না হয় অফিসে বসে খেলা দেখবেন। টিভির জায়ান্ট স্ক্রিনেও খেলা দেখায় কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু মোবাইলে একেবারেই নয়, জানালেন অরিন্দম। কাকে সমর্থন করেন? আনন্দ পেতে খেলা দেখেন পরিচালক। অন্ধ ক্রীড়প্রেমী নন, তাই সমর্থন কোনও দলকেই নয়। তবে প্রচ্ছন্ন সমর্থন অবশ্যই থাকে কেকেআর-এর প্রতি।

হারলে মন নিশ্চয় ভারাক্রান্ত হয়? ‘‘অল্প’’, হেসে উত্তর দেন অরিন্দম। যুক্তি দিয়ে বলেন, ‘‘হয়তো অন্ধ সমর্থক নই, তাই।’’ এ বার কেকেআরের সব চেয়ে দামি খেলোয়াড় প্যাট কামিন্স খেলছেন। আগের বারের থেকে এ বারের কেকেআর-এর ভারসাম্য অনেকটাই বেড়েছে। জেতার সম্ভাবনা কি এ বার একটু হলেও বেশি? অরিন্দম বলছেন, ‘‘ ক্রিকেট আনপ্রেডিক্টেবল। শেষ মুহূর্তে সব বদলে যেতে পারে। তাই আগে থেকে কোনও ভবিষ্যদ্বাণী করতে রাজি নই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন