মাত্র ২৭ বলে পাঁচ উইকেট। আর সেটাও চার রান দিয়ে। বার্বাডোজের ব্রিজটাউনে সিরিজের প্রথম টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের ৭৭ রানে শেষ হওয়ার নেপথ্যে কেমার রোচের এই বিধ্বংসী স্পেলই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৮৯ রানের জবাবে একসময় ৩৫ রানে এক উইকেট ছিল ইংল্যান্ডের। সেখান থেকে ৭৭ রানে শেষ হয়ে গেল ইনিংস। ৩৫ রানে রোরি বার্নসকে ফিরিয়ে দেন রোচ। সেই শুরু। ৩০ বছর বয়সী রোচকে আর আটকানো যায়নি।

বার্নসের মতো বোল্ড করেন জনি বেয়ারস্টোকেও। পরের শিকার বেন স্টোকস। তিনি এলবিডব্লিউ হন। এরপর তাঁর বলে ফাইন লেগে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মইন আলি। রোচের পঞ্চম শিকার হন জস বাটলার। তাঁর খোঁচা জমা হয় উইকেটকিপারের গ্লাভসে।এই পাঁচ শিকার আসে ২৭ বলের ফারাকে। ইংল্যান্ড ইনিংসের ১১.৫ ওভার থেকে ২১.১ ওভারের মধ্যে তিনি নেন পাঁচ উইকেট। বাটলার যখন আউট হন তখন ইংল্যান্ডের রান সাত উইকেটে ৪৯। মানে, ১৫ রানের মধ্যে ছয় উইকেট হারায় জো রুটের দল। এর মধ্যে পাঁচটি উইকেটই নেন রোচ। কার্যত, ইংল্যান্ডের মিডল অর্ডারে ধ্বংসলীলা চালান তিনি।

 

আরও পড়ুন: কোহালি গ্রেট, প্রশংসায় মাতলেন এ বার গারফিল্ড সোবার্সও​

 

আরও পড়ুন: হতে পারে একটি পরিবর্তন, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে কেমন দল নামাতে চলেছে ভারত​

ইংল্যান্ডের ৭৭ রানই বার্বাডোজের কেনসিংটন ওভালে কোনও দলের টেস্টে সবচেয়ে সংগ্রহ। এর আগের ১৯৭৭ সালের মার্চে এই মাঠে টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৮১ রানে আউট হয়ে গিয়েছিল ভারত। সেটাই ছিল এই মাঠে টেস্টে সর্বনিম্ন রান। ইংল্যান্ড এখন সেই লজ্জার রেকর্ডে ভারতকে দুইয়ে পাঠিয়ে উঠে এল শীর্ষে। যার নেপথ্যে থাকলেন রোচ। ১১-৭-১৭-৫ থাকল তাঁর বোলিং গড়। রোচের টেস্ট কেরিয়ারে এটা নবম পাঁচ উইকেট।

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল, টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)