গত দুই মরসুমে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের অধিনায়ক ছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। আগামী মরসুমে তাঁকে দিল্লি ক্যাপিটালসে দেখা যেতে পারে বলে জল্পনা চলছিল। যদিও চলতি সপ্তাহের গোড়ায় ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্যতম মালিক নেস ওয়াদিয়া জানিয়ে দেন অশ্বিনকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে না।

তবে অশ্বিনকে নিয়ে সিদ্ধান্তে পরিবর্তন ঘটলেও তাঁকে নেতৃত্ব দেওয়া হবে কি না, তা পরিষ্কার নয়। ধোঁয়াশা কাটাতে চাইছেন না পঞ্জাবের সদ্য নিযুক্ত প্রধান কোচ অনিল কুম্বলে। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের শুধু প্রধান কোচই নন, তিনি ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট অপারেশনসও।

৪৯ বছর প্রাক্তন স্পিনারের কথায়, “অশ্বিন বা যে কোনও ক্রিকেটারকে নিয়ে সিদ্ধান্তই হল অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। অশ্বিন হল দলের কাছে অসাধারণ এক সম্পদ। গত কয়েক বছর ধরে জাতীয় দলে ওর অবদানের কথা আমরা সবাই জানি। ও ভারতের হয়ে অসাধারণ খেলেছে। কিন্তু তার মানে এটা নয় যে, আগামী আইপিএলে ও-ই অধিনায়ক হবে। আর এই ব্যাপারে কোনও ক্রিকেটারকে নিয়েই এখনও পর্যন্ত আমরা কোনও সিদ্ধান্ত নিইনি। এটা নিয়ে কথা বলতে হবে।”

আরও পড়ুন: ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট কবে? সৌরভ বললেন, মোদীজি-ইমরানকে জিজ্ঞাসা করুন​

আরও পড়ুন: ব্যাটিংয়ে তোমাকে প্রয়োজন দক্ষিণ আফ্রিকার, জন্টিকে খোঁচা ভাজ্জির

টেস্টে দেশের সফলতম উইকেটসংগ্রহকারী হলেন কুম্বলে। কর্নাটক রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন তিনি। এখন ধারাভাষ্যের জগতেও পরিচিত মুখ প্রাক্তন লেগস্পিনার। এক সময় জাতীয় দলের কোচও হয়েছিলেন। কিন্তু ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর অধিনায়ক বিরাট কোহালির সঙ্গে সম্পর্কে অবনতির জেরে পদত্যাগ করেন তিনি। কেন আবার ফিরতে চাইছেন কোচিংয়ে? কুম্বলের উত্তর, “সব সময় ক্রিকেটারদের সঙ্গে থাকতেই ভাল লাগে। যতই প্রশাসক হই না কেন, এখন ধারাভাষ্য দিই না কেন, মাঠেই সবচেয়ে ভাল লাগে। আমার অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে চাই ক্রিকেটারদের সঙ্গে।”

কিংস ইলেভেন পঞ্জাব এখনও আইপিএল জেতেনি। ২০১৪ সালে রানার্স হওয়াই তাদের সেরা সাফল্য। সেই কারণেই কুম্বলের মতো তারকার হাতে দলের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কুম্বলে সাফল্য পান কি না সে দিকেই এখন নজর ক্রিকেটমহলের।