ভারতীয় ক্রিকেটার রোহিত শর্মার সঙ্গে সুদানের একটি পুরনো ছবি পোস্ট করল কেনিয়ার ওল পেজেটা কনজার্ভেন্সি। আসলে প্রাণী সংরক্ষণে রোহিত শর্মার সাহায্যকে সম্মান জানাতেই তাদের এই পোস্ট।

যে গণ্ডারটির সঙ্গে ছবি পোস্ট করা হয়েছে রোহিতের, তার নাম সুদান। সুদান ২০১৮ সালেই মারা যায়। সুদানই ছিল পৃথিবীর শেষ পুরুষ নর্দান হোয়াইট রাইনো। সুদানের মৃত্যুর পরও এই প্রজাতির আরও দু’টি গণ্ডার বেঁচে রয়েছে কিন্তু তারা দু’জনেই স্ত্রী গণ্ডার।

কেনিয়ার লাইকিপিয়া এলাকায় ওল পেজেটা সংরক্ষণকেন্দ্রে যান রোহিত শর্মা ও তাঁর স্ত্রী ঋতিকা। সেটা ছিল ২০১৫ সালের মার্চ মাস। সেখানে সুদানের সঙ্গে ছবিও তোলেন রোহিত। নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডলে পোস্ট করেন ছবিটি।

আরও পড়ুন : এত বড় কিং কোবরাকে ধরার ভিডিয়ো দেখেছেন কোনও দিন?

চার বছরের পুরনো সেই ছবি নতুন করে পোস্ট করে ওল পেজেটা কনজার্ভেন্সি জানিয়েছে, রোহিত শর্মা তাদের গণ্ডার প্রকল্পে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন। ২০১৫ সালের রোহিত ও ঋতিকার ওল পেজেটা কনজার্ভেন্সি ঘুরতে যান। গণ্ডার প্রকল্পে রোহিত শর্মার গুরুত্বপূর্ণ সাহায্যের জন্য তারা যে সম্মানিত তা জানিয়ে ধন্যবাদ দিয়েছে ওল পেজেটা কনজার্ভেন্সি।

ওল পেজেটার ইনস্টাগ্রাম পোস্ট:

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Captain of the Mumbai Indians cricket team and one of the most successful batsman in the Indian Premier League, Rohit Sharma (@rohitsharma45) has made a significant donation towards our rhino conservation programme. Rohit and his wife Ritika came to Ol Pejeta back in 2015 to meet Sudan, the last male northern white rhino in the world. Thanks to their visit and his huge following in India and the world, the story of Sudan reached thousands of people. He is actively associated with animal protection and has been a strong supporter of our cause since then. We are honoured Sharma chose to contribute to our conservation work and hope more celebrities use their influence to raise awareness about the plight of the planet's most critically endangered species. 🦏🦏 #WildlifeConservation #OlPejeta #OlPejetaDoMore #ConservationChampion #ProtectingBiodiversity

A post shared by Ol Pejeta Conservancy, Kenya (@olpejeta) on

২০১৫ সালে রোহিত শর্মার ইনস্টাগ্রাম পোস্ট:

সুদানে ১৯৭৫ সালে ছ’টি সাদা গণ্ডার ধরা পড়ে। তাদের মধ্যে সুদান ও সাউট ছিল পুরুষ বাকি চারটি নোলা, নুরি, নাদি, নেসারিস্ত্রী গণ্ডার। সুদানের বয়স তখন দু’বছর। তারপর থেকে তাকে সংরক্ষিত এলাকায় রাখা হয়। ২০১৮ সালে ৪৫ বছর বয়সে সুদানের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে পৃথিবী থেকে এই প্রজাতির পুরুষ গণ্ডার লুপ্ত হয়ে যায়। অন্য প্রজাতির জীবিত গণ্ডারদের বাঁচাতে চেষ্টা চলছে। সেই প্রচেষ্টাতেই অংশ নিয়েছেন রোহিত শর্মাও।

আরও পড়ুন : সুন্দর ডিজাইন, আকর্ষণীয় দাম ও ফিচার নিয়ে বাজারে এল নোকিয়া ১১০ (২০১৯)