হাঙরের আক্রমণ প্রতিহত করতে পারে, এমন পোশাক তৈরির দাবি করলেন অস্ট্রেলিয়ার একদল বিজ্ঞানী। দাঁত পোশাক ভেদ করতে না পারায় হাঙরের আক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা অনেকটাই কমবে বলে আশা করছেন তাঁরা।

হাঙর নিয়ে কাজ করা বা হাঙরের এলাকায় সমুদ্রস্নান, স্কুবা ডাইবিংয়ের ক্ষেত্রে দুর্ঘটনার সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। হাঙরের আক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা গোটা বিশ্বেই ঊর্ধ্বমুখী। সেই সংখ্যা কমাতেই গবেষণা চালান দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার ফিনল্যান্ডার ইউনিভার্সিটির এক দল গবেষক।

গবেষকরা বিশ্বের যে সব শক্ত সুতো রয়েছে সেগুলি নিয়ে কাজ শুরু করেন। শেষ পর্যন্ত তাঁরা ‘আল্ট্রা-হাই মলিকিউলার ওয়েট পলিথিলেন ফাইবার’ দিয়ে এই পোশাক বানান। এটি বিশ্বের সব থেকে শক্ত তন্তুগুলির মধ্যে অন্যতম।

আরও পড়ুন: ১০ বছর অজ্ঞাতবাসে থাকার পর সামনে এল ১০ ফুটের পাইথন!

নতুন তৈরি পোশাকবা ‘ওয়েট সুট’দিয়ে একাধিক স্তরে পরীক্ষা করা হয়। প্রথমে পোশাকটি হাঙরের ত্রিমাত্রিক মডেলের সাহায্যে পরীক্ষা করা হয়। পোশাকের কতটা ক্ষতি হচ্ছে দেখা হয়। পরে আসল হাঙরের মুখে ফেলে পরীক্ষা করেন বিজ্ঞানীরা। তবে সেক্ষেত্রে পোশাকের মধ্যে রাখা হয় কাঠের মডেল। সেটিকে আসল হাঙরের মুখে ফেলা হয়। দেখা হয়, হাঙরের দাঁত পোশাক ফুটো করতে পারছে কিনা। পরীক্ষার ফলাফল খুবই ভাল বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা।

আরও পড়ুন: ঘণ্টায় ২১৭ কিমি বেগে ছুটছে জেসিবি-র ট্র্যাক্টর! ভাইরাল গতির ভিডিয়ো

ইন্টারন্যাশনাল সার্ক অ্যাটাক ফাইল নামে এক সংগঠন জানিয়েছে,বিশ্ব জুড়ে ১৯৫৮ সাল থেকে ২০১৬ থেকে বিনা প্ররোচনায় হাঙরের মুখে মৃত্যুর সংখ্যা ২৭৮৫।