গোলাপি জ্বরে কাঁপছে কলকাতা। গোলাপি বলে প্রথম দিনরাতের টেস্টের উন্মাদনা এতটাই যে, মিষ্টির রংও হয়ে উঠেছে গোলাপি। আর গোলাপি মিষ্টির সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন ভারতের ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় স্বয়ং।

শহরের বহুতলগুলোর রং এখন গোলাপি। শহিদ মিনারের রংও তাই। ইডেন জুড়েও গোলাপি রং। উড়ছে গোলাপি বেলুন। ম্যাসকটও গোলাপি। গ্যালারিতে তাকালেও চোখে পড়ছে গোলাপি রং। তবে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে অবাক করেছে গোলাপি মিষ্টি। যা বিশেষ ভাবে তৈরি হয়েছে ভারত ও বাংলাদেশের ঐতিহাসিক এই টেস্ট উপলক্ষে।

মূলত সৌরভের উদ্যোগেই আয়োজিত হচ্ছে গোলাপি বলের এই টেস্ট। বোর্ড প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরই তিনি ইডেনে জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, টেস্ট ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ হচ্ছে এটাই। জাতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহালিকে প্রথম বৈঠকেই এটা বুঝিয়েছিলেন। সৌরভের কথায়, কোহালিকে রাজি করাতে তিন সেকেন্ড লেগেছিল তাঁর। ভারতের মতো বাংলাদেশও এর আগে গোলাপি বলে টেস্ট খেলেনি। ইডেনে তাই দুই দলই গোলাপি বলে প্রথম টেস্ট খেলতে সম্মতি জানায়।

আরও পড়ুন: ইতিহাসের ইডেন গার্ডেন্স

আরও পড়ুন: গোলাপি বল ও দিন-রাতের টেস্ট 

আরও পড়ুন: গোলাপি বলে টেস্ট আড়াই দিনেই শেষ হবে না তো, আশঙ্কায় সম্বরণ

আরও পড়ুন: আদা কম, লেবু বেশি! বুলু ভাইকে চা বানাতে বললেন ধোনি​ 

এই টেস্ট ঘিরে উন্মাদনা ক্রমশ তুঙ্গে উঠেছে। সৌরভ আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন যে প্রথম চারদিনের সব টিকিট শেষ হয়ে গিয়েছে। আর তা হয়েছে অনলাইনেই। ইডেনে কাউন্টার থেকে শুরু করাই যায়নি টিকিট বিক্রি। ময়দান জুড়ে তাই ক্রিকেটপ্রেমীদের হাহাকার টিকিটের জন্য। টেস্ট ম্যাচ ঘিরে এই উন্মাদনাই অন্য মাত্রা দিয়েছে এই টেস্টকে।

এই টেস্ট উপলক্ষে ইডেনে আসছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ঘণ্টা বাজিয়ে টেস্ট শুরুর ঘোষণা করবেন তিনি। এই টেস্ট ঘিরে থাকছে একগুচ্ছ অনুষ্ঠানও। থাকছে টক শো। থাকছে প্রাক্তন ক্রিকেটারদের সংবর্ধনা। রয়েছে সঙ্গীতানুষ্ঠানও।

দুই টেস্টের সিরিজে বিরাট কোহালির দল ১-০ এগিয়ে রয়েছে। ইনদওরে প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ১৩০ রানে জিতেছিল ভারত। ইডেনে সিরিজ জেতার হাতছানি টিম ইন্ডিয়ার সামনে।

ইনদওরে টেস্ট শেষ হয়েছিল তিন দিনের মধ্যে। ইডেনে গোলাপি বলে প্রথম টেস্টও দ্রুত শেষ হয়ে যাবে না তো, এমন আশঙ্কা কিন্তু রয়েছে। বিশেষ করে গোলাপি বল গোধূলি বেলায় বেশি সুইং করে বলে ব্যাটসম্যানদের কাছে তা হয়ে ওঠে বাড়তি চ্যালেঞ্জের।

গোলাপি বলে হওয়া আগের টেস্টগুলোর তুলনায় ইডেনে বেশিক্ষণ ফ্লাডলাইটের আলোয় খেলা চলবে। ফলে চ্যালেঞ্জ অনেক বেশি। অনভিজ্ঞ মোমিনুল হকের দল তা কতটা নিতে পারবে, সংশয় সেখানেই।