• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দিয়েগো-র ‘উদ্দাম যৌনতা’ বিলুপ্তির মুখ থেকে ফিরিয়ে আনল গোটা প্রজাতিকে

Diego
দিয়েগো। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

Advertisement

কয়েক দশক আগে মনে করা হচ্ছিল হয়তো আর বাঁচানো যাবে না, শেষ হয়ে যাবে গোটা একটা প্রজাতি। কিন্তু নিজের প্রজাতিকে বাঁচাতে এক রকম ‘দায়িত্ব’ কাঁধে তুলে নেয় দিয়েগো। দিয়েগো ‘কেলোনয়েডিস হুডেনসিস’ প্রজাতির বড় আকারের কচ্ছপ। এক রকম তার চেষ্টাতেই বেঁচে গেল এই প্রজাতির কচ্ছপ, ফিরে এল বিলুপ্তির পথ থেকে।

গত শতকের মাঝামাঝি সময়ে মনে করা হচ্ছিল হারিয়েই যাবে ‘কেলোনয়েডিস হুডেনসিস’ কচ্ছপরা। বিলুপ্তপ্রায় এই প্রজাতিকে বাঁচাতে ১৯৬০ সালে একটি প্রকল্প নেওয়া হয়। সেই সময় আমেরিকার নিউ মেক্সিকোর এসপ্যানোলা-তে মাত্র ২টি পুরুষ ও ১২টি স্ত্রী কেলোনয়েডিস হুডেনসিস কচ্ছপ বেঁচে ছিল।

এই প্রজাতিকে বাঁচাতে উদ্যোগ নেওয়া হয়। ক্যালিফর্নিয়ার সান দিয়েগো চিড়িয়াখানা থেকে দিয়েগো-কে গ্যালাপাগোস দ্বীপে নিয়ে যায় গ্যালাপাগোস ন্যাশনাল পার্ক সার্ভিস সংস্থা। বিজ্ঞানীদের তত্ত্বাবধানে রাখা হয় তাদের। প্রজনন করিয়ে তাদের সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা শুরু হয়।

আরও পড়ুন: বর্ষবরণের রাতে প্রকাশ্যে যৌন নির্যাতন, ভয়ে-যন্ত্রণায় চিত্কার যুবতীর

গ্যালাপাগোসে দিয়েগোর প্রবল যৌন ইচ্ছা শেষপর্যন্ত বিলুপ্তপ্রায় প্রাণীদের তালিকা থেকে বের করে আনে কেলোনয়েডিস হুডেনসিস প্রজাতিকে। ১৯৬০ সাল থেকে এই পর্যন্ত প্রায় ২ হাজার কেলোনয়েডিস হুডেনসিস কচ্ছপের জন্ম হয়েছে। আরএর ৪০ শতাংশেরই বাবা দিয়েগো বলে দাবি করেছে ন্যাশনাল পার্ক সার্ভিস।

আরও পড়ুন: নিয়মিত এই সব কাজ করেন না স্বামী, বিচ্ছেদের আর্জি স্ত্রীর

এই প্রকল্প এখন শেষের পথে। দিয়েগোর বয়স এখন ১০০ বছরের উপর। মার্চ মাসেই এসপ্যানোলা দ্বীপ, যা দিয়েগোর আদি বাড়ি, সেখানে তাকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন